1. admanu3@gmail.com : admanu :
  2. arnasir81@gmail.com : আব্দুর রহমান নাসির - বিশেষ প্রতিবেদক : আব্দুর রহমান নাসির - বিশেষ প্রতিবেদক
  3. nrad2007@gmail.com : এডমিন পেনেল : এডমিন পেনেল
  4. kawsarkayes@gmail.com : মোঃ আবু কাউসার - বিশেষ প্রতিবেদক : মোঃ আবু কাউসার - বিশেষ প্রতিবেদক
  5. ad@gil.com : মোহাম্মদ আবু দারদা সহ-সম্পাদক : মোহাম্মদ আবু দারদা সহ-সম্পাদক
  6. mrahman192618@gmail.com : মশিউর রহমান খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় : মশিউর রহমান খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়
  7. rafiqpress07@gmail.com : সম্পাদক ও প্রকাশক - এম.রফিকুল ইসলাম : সম্পাদক ও প্রকাশক - এম.রফিকুল ইসলাম
  8. asmarimi85@gmail.com : আসমা আক্তার রিমি সহ-সম্পাদক : আসমা আক্তার রিমি সহ-সম্পাদক
সোমবার, ২৬ অক্টোবর ২০২০, ০৭:০২ অপরাহ্ন

নীলফামারীতে গ্রামীণ অবকাঠামো সংস্কার ও রক্ষণাবেক্ষণ কাজে অনিয়মের অভিযোগ

প্রথম সংবাদ ডেস্ক :
  • আপডেট সময় সোমবার, ১৭ আগস্ট, ২০২০
  • ২ বার পড়া হয়েছে

স্বপ্না আক্তার , রংপুর ব্যুরো প্রধান।

নীলফামারী সদর উপজেলার ২০১৯-২০ অর্থ বছরের নির্বাচনী এলাকা ভিত্তিক গ্রামীন অবকাঠামো সংস্কার (কাবিখা-খাদ্যশস্য) ও একই অর্থ বছরের গ্রামীন অবকাঠামো রক্ষণাবেক্ষণ (টি আর) নগদ অর্থের কাজে অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায় সদরের কুন্দপুকুর, সংগলশী ও পলাশবাড়ী ইউনিয়নে কোথাও কোথাও কাবিখা ও টি আর এর কাজ দ্বায়-সারা ভাবে করেছে আবার কোন প্রকল্প এলাকায় এক কোদাল মাটিও ফেলা হয়নি। সদর উপজেলার কুন্দপুকুর ইউনিয়নে গ্রামীন অবকাঠামো রক্ষণাবেক্ষণ (টি আর) ২য় পর্যায়ে নগদ অর্থ কর্মসূচীর আওতায় বরাদ্দকৃত সোলার প্যানেল প্রকল্পের আওতায় বানিয়াপড়া কবরস্থান মোড়ের স্ট্রিট লাইট বসানোর কথা থাকলেও এই রিপোর্ট লিখা পর্যন্ত কোনো সোলার প্যানেল স্ট্রিট লাইট স্থাপন করা হয়নি। বানিয়াপাড়া গ্রামের আবুল হোসেন অভিযোগ করে বলেন, বানিয়াপাড়া কবরস্থানে লাইট বসানোর কথা থাকলেও এখনো তা লাগায়নি। একই গ্রামের আব্দুস ছাত্তার ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, এই কবরস্থানটি রাস্তার পাশেই অবস্থিত। আর সন্ধা হলেই এই যায়গায় অন্ধকুপে পরিনত হয়। যদি লাইট লাগানো হত তাহলে আমাদের চলাচলে সুবিধা হত। অপরদিকে ২০১৯-২০ অর্থ বছরের গ্রামীন অবকাঠামো সংস্কার (কাবিখা-খাদ্যশস্য) সদরের সংগলশী ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের খামাতপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় হতে ডাঙ্গাপাড়া পর্যন্ত রাস্তা সংস্কারের কাজ যেন-তেন ভাবে করেছে বলে অভিযোগ এলাকাবাসীর। খামাত পাড়া গ্রামের তফুর আলী বলেন, মানুষ যাতে বোঝে রাস্তার কাজ কইরছে তাই কোন মতে রাস্তা ছিলি ছালে দিছে। একই গ্রামের মোকছেদুল আমিন বলেন, রাস্তার সাইটে যে ঘাষ ছিলো ঐইলাই খালি এনা ছিলে ছালে দিছে। একই অর্থ বছরের গ্রামীন অবকাঠামো সংস্কারের (কাবিখা-খাদ্যশস্য) চড়াইখোলা ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের দারোয়ানী মেলার পিলারের মোড় হতে সৈয়দ পাগলাপীর সাহেবের মাজার হয়ে দোলার বাড়ী পর্যন্ত রাস্তা সংস্কারের কাজ থাকলেও এক চিমটি মাটি পড়েনি। ঐ প্রকল্পের সভাপতি ইউপি সদস্য ফয়জার রহমান বাবু বলেন, কাজ করিনি কিন্তু করবো। ২০১৯-২০ অর্থ বছরের নির্বাচনী এলাকা ভিত্তিক গ্রামীন অবকাঠামো সংস্কার (কাবিখা-খাদ্যশস্য) ও একই অর্থ বছরের গ্রামীন অবকাঠামো রক্ষণাবেক্ষণ কাজের অনিয়মে ভুক্তভোগীরা ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। অপরদিকে একই অর্থ বছরের গ্রামীন অবকাঠামো সংস্কার তরণীবাড়ী (অনিল বাবু পাড়া) সার্বজনীন বিষ্ণু মন্দির সংস্কারের টাকা পুরোটা না পাওয়ায় কাজ করতে বিলম্ব হয়েছে বলে জানান প্রকল্প চেয়ারম্যান ও ঐ মন্দিরের কোষাধাক্ষ্য বলেন, ৯মেঃটন গমের পরিবর্তে পিইও অফিসের ফরিদ আমাকে ১লক্ষ ৬০ হাজার টাকা দেয় এবং বলে পরে লাগলে আরো দেব টাকাটা আমরা পুরোটা একবাওে পেলে সুবিধা হত আমাদের। একই ইউনিয়নের একই অর্থ বছরের গ্রামীন অবকাঠামো রক্ষণাবেক্ষণ (টি আর) ২য় পর্যায়ের নগদ অর্থের পলাশবাড়ী পরশমনি উচ্চ বিদ্যালয়ের সিমানা প্রাচীর নির্মান কাজ নিম্নমানের হয়েছে বলে অভিযোগ করেন এলাকাবাসী। এ বিষয়ে পলাশবাড়ী পরশমনি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হামিদুল ইসলাম বলেন, কাজ নিম্নমানের করেছি এটা দেখবে পিইও আপনারা কে?
গত ৩০ জুন ২০২০ কাজ করার সময় শেষ হলেও সময়মত কাজ শেষ না হওয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে সদর উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা রিয়াজুল ইসলাম রিয়াজ বলেন, সময়মত কাজ হয়নি ঠিকই কিন্তু কাজ অবশ্যই করা হবে।
জানতে চাইলে সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এলিনা আকতার বলেন, করোনা ও বর্ষার কারণে সময়মত কাজ করতে একটু বিলম্ব হচ্ছে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর