1. admanu3@gmail.com : admanu :
  2. arnasir81@gmail.com : আব্দুর রহমান নাসির - বিশেষ প্রতিবেদক : আব্দুর রহমান নাসির - বিশেষ প্রতিবেদক
  3. nrad2007@gmail.com : এডমিন পেনেল : এডমিন পেনেল
  4. kawsarkayes@gmail.com : মোঃ আবু কাউসার - বিশেষ প্রতিবেদক : মোঃ আবু কাউসার - বিশেষ প্রতিবেদক
  5. ad@gil.com : মোহাম্মদ আবু দারদা সহ-সম্পাদক : মোহাম্মদ আবু দারদা সহ-সম্পাদক
  6. rafiqpress07@gmail.com : সম্পাদক ও প্রকাশক - এম.রফিকুল ইসলাম : সম্পাদক ও প্রকাশক - এম.রফিকুল ইসলাম
  7. asmarimi85@gmail.com : আসমা আক্তার রিমি সহ-সম্পাদক : আসমা আক্তার রিমি সহ-সম্পাদক
মঙ্গলবার, ২৭ অক্টোবর ২০২০, ০৭:০৬ অপরাহ্ন

মধ্যরাত থেকে ২২ দিন সব ধরনের মাছ ধরায় নিষেধাজ্ঞা

প্রথম সংবাদ ডেস্ক :
  • আপডেট সময় মঙ্গলবার, ১৩ অক্টোবর, ২০২০
  • ১ বার পড়া হয়েছে

এম,সাইফুল ইসলাম।-বরগুনা।।

ইলিশের প্রধান প্রজনন মৌসুমে মা ইলিশ রক্ষায় ও দেশে ইলিশ সম্পদ বৃদ্ধি করতে টানা ২২ দিন সাগরে ইলিশসহ সব ধরনের মাছ ধরায় নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে।

মধ্যরাত থেকে ৪ নভেম্বর পর্যন্ত ২২দিন বরগুনাসহ সারাদেশের নদ-নদীতে ইলিশসহ সকল ধরনের মাছ ধরা নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে সরকার। ১৩ অক্টোবর মধ্যরাত থেকে এই নিষেধাজ্ঞা কার্যকর করা হবে।

নিষেধাজ্ঞার সময় ইলিশ আহরণ, পরিবহন, বাজারজাতকরণ, মজুত ও ক্রয়-বিক্রয় সম্পন্ন নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে সরকার।

নিষেধাজ্ঞা কারণে বরগুনার জেলেরা তাদের জাল নৌকা ডাঙ্গায় তুলে রাখতে শুরু করেছে। তবে কষ্ট হলেও সরকারি নিষেধাজ্ঞা মেনে চলবে বলে জানিয়েছে জেলেরা। যদিও জেলেদের দাবি তারা কখনো সরকারি অভিযানের সময় নদীতে নামেন না। এ সময়ে সরকারের পক্ষ থেকে চাল সহায়তা পায় জেলেরা। তবে তা প্রয়োজনের তুলনায় অপ্রতুল হওয়ায় জেলেদের দাবি এ সহযোগিতা যেন বাড়ানো হয়।

জেলেদের দাবী, বরাদ্দের চাল বিতরনে ব্যাপক অনিয়ম করে জনপ্রতিনিধিরা। তাদের বরাদ্দের চাল পায় জনপ্রতিনিধিদের স্বজন ও অন্য শ্রেণী পেশার মানুষ।

পাথরঘাটার জেলেরা বলেন, বিগত বছরের প্রত্যেকবারই নিষেধাজ্ঞা শেষে সহায়তার চাল পাচ্ছি আমরা, যা আমাদের কোনো উপকারেই আসেনা। আমরা সময়মতো সহায়তা পাচ্ছিনা, দেখা গেছে অবরোধ শেষ হওয়ার পর পাচ্ছি সহায়তা।

তালতলীর জেলেরা বলেন,মোরা দিন আনি দিন খাই,মোগো চাউল দেয় অবোরোদের অনেক পর।সরকার জানি মোগো একটু আগেবাগে চাউল দেয়, তাইলেই মোরা খুশি।

তারা আরও বলেন, যারা প্রকৃত জেলে তারা পাচ্ছেনা বরাদ্দের চাল। বিগত সময়ে জেলেদের বরাদ্দের চাল পেয়েছে অন্য শ্রেণী পেশার মানুষ। তাই পেটের তাগীদে অনেকেই মানেনা নিষেধাজ্ঞা। তবে আমরা অনুরোধ করছি সঠিক বন্টনে মৎস্য অফিস নজড় রাখবেন জেলে তালিকায়।

বরগুনা জেলা মৎস্য কর্মকর্তা আবুল কালাম আজাদ জানান, বরগুনা জেলায় সরকারি নিবন্ধিত জেলে সংখ্যা ৩৭ হাজার। এসব জেলেদের জন্য সরকার ২০ কেজি করে চাল বরাদ্দ দিয়েছে। এই নিষেধাজ্ঞা ভঙ্গ করলে ১ থেকে ২ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড এবং সর্বোচ্চ ৫ হাজার টাকা জরিমানা অথবা উভয় দণ্ডের বিধান রয়েছে।

ইলিশের প্রধান প্রজনন মৌসুমে ডিম ছাড়ার সুযোগ দিতে ২২ দিন সারাদেশের নদ-নদীতে ইলিশসহ সব ধরনের মাছ ধরা নিষিদ্ধ করেছে সরকার।

মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয় থেকে এ সংক্রান্ত আদেশ জারি করা হয়েছে। এই সময়ে সারা দেশে ইলিশ আহরণ, বিপণন, পরিবহন, ক্রয়-বিক্রয়, বিনিময় এবং মজুদও নিষিদ্ধ ঘোষনা করেছে সরকার। এই সময়ে কর্মহীন হয়ে পড়ে উপকূলের লক্ষাধিক জেলে। বরগুনা জেলায় সরকারি নিবন্ধিত জেলে সংখ্যা ৩৭ হাজার, তবে বেসরকারি হিসেবে জেলে রয়েছে লক্ষাধিক।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর