1. admanu3@gmail.com : admanu :
  2. arnasir81@gmail.com : আব্দুর রহমান নাসির - বিশেষ প্রতিবেদক : আব্দুর রহমান নাসির - বিশেষ প্রতিবেদক
  3. nrad2007@gmail.com : এডমিন পেনেল : এডমিন পেনেল
  4. kawsarkayes@gmail.com : মোঃ আবু কাউসার - বিশেষ প্রতিবেদক : মোঃ আবু কাউসার - বিশেষ প্রতিবেদক
  5. ad@gil.com : মোহাম্মদ আবু দারদা সহ-সম্পাদক : মোহাম্মদ আবু দারদা সহ-সম্পাদক
  6. rafiqpress07@gmail.com : সম্পাদক ও প্রকাশক - এম.রফিকুল ইসলাম : সম্পাদক ও প্রকাশক - এম.রফিকুল ইসলাম
  7. asmarimi85@gmail.com : আসমা আক্তার রিমি সহ-সম্পাদক : আসমা আক্তার রিমি সহ-সম্পাদক
শুক্রবার, ৩০ অক্টোবর ২০২০, ০৭:১৯ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ দেশের উন্নয়ন অগ্রযাত্রায় অপার সম্ভাবনাময় খাত – মন্ত্রী বৃক্ষের আচ্ছাদন ২৫ শতাংশে উন্নীতির লক্ষ্যে সরকার – পরিবেশ মন্ত্রী ঝিনাইদহে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের বিক্ষোভ মিছিল সোনাপুর হাই স্কুলে অভিভাবক সমাবেশ অনুষ্ঠিত জাতি বিনির্মাণে মানুষের মনন তৈরিতে গণমাধ্যম অনন্য -তথ্যমন্ত্রী দেশব্যাপী কমিউনিটি পুলিশিং ডে উদযাপিত হচ্ছে শনিবার সাংবাদিক নেতাদের সঙ্গে মানবকন্ঠ’র ঔদ্বত্যপূর্ণ আচরণে ডিইউজের নিন্দা অসহায় শিশুর পাশে সোনাগাজী পৌর মেয়র এড.খোকন যশোরে ব্যবসায়ী মোস্তফা হত্যাকাণ্ডের রহস্য উদঘাটন, আটক-২ রংপুরে ধর্ষণের ঘটনায় জড়িত এএসআই রাহেনুল গ্রেফতার

কামাল শেখ এবং মোঃ আমজাদ এর ব্যাগ ফ্যাক্টরিতে বলির পাঠা হচ্ছে সকল মেহনতি শ্রমিকগন

প্রথম সংবাদ ডেস্ক :
  • আপডেট সময় শনিবার, ১০ অক্টোবর, ২০২০
  • ২ বার পড়া হয়েছে

ফয়সাল আহমেদ, ঢাকা।

চিটাগাংরোড সংলগ্ন নিমাইকাশারি এলাকায় অবস্থিত এই ব্যাগ ফ্যাক্টরিতে শ্রমিকদের কাজে নিয়োগ দেয়ার সময় তাদের বেতন কত ধার্য করা হয়েছে সেটা কখনোই পরিস্কার করে বলে দেয়া হচ্ছেনা। অত:পর প্রতি সপ্তাহে তাদের নামেমাত্র হাতখরচ প্রদান করা হয়। কিন্তু মূল বেতন প্রদান করা হয়না। এভাবেই মাসের পর মাস চলতে থাকে। একসময় শ্রমিকগন অতিষ্ট হয়ে উচ্চবাচ্য করলেই তাদের চুরির অপবাদ দিয়ে বের করে দেয়া হয়। এছাড়া শ্রমিকদের তিনশত টাকা হাতখরচ প্রদান করে তিন হাজার টাকা লিখে রাখার মত জঘন্য কাজও করে থাকেন কামাল শেখ এবং মোঃ আমজাদ। প্রতিদিন শিশু শ্রমিকদের পিতামাতাগন তাদের সন্তানের বেতনের টাকা পাওয়ার আশায় ঘন্টার পর ঘন্টা অফিসে বসে থাকেন কিন্তু কামাল শেখ যেন তাদের দেখেও কিছুই দেখেন না। নারী শ্রমিকদের বিভিন্নপ্রকার অশ্লীল গালিগালাজও করে থাকেন কামাল শেখ এবং মোঃ আমজাদ।
কিছুদিন আগে সীমা নামের একজন নারী শ্রমিককে নিয়োগ দিয়ে কিছুদিন কাজ করিয়েই বিনা কারনে বিনা নোটিশে মজুরি প্রদান না করেই ছাটাই করে দেন কামাল শেখ। যার ফলে দুই সন্তান নিয়ে মহাসংকটে পড়ে যায় সীমা। এদিকে বিগত সাত আট মাসের বেতন না পেয়ে শ্রমিকগন মালিকদের হাতে বলির পাঠা হতে চলেছে।
শুধু শ্রমিকগনই নয়, এমনকি পাড়াপ্রতিবেশী, আত্মীয়স্বজনের নিকট থেকে মিথ্যা বিপদে পড়ার কথা বলে টাকা ধার নিয়ে সেই টাকা আত্মসাৎ করেছেন মোঃ আমজাদ। দোকানের বাকি পরিশোধ না করে এলাকা ছেড়ে দেয়া, বাড়ী ভাড়া না দিয়ে গোপনে পালিয়ে যাওয়া, নিজের স্ত্রীর নামে সমিতি থেকে লোন নিয়ে সেই টাকা আত্মসাৎ করে ফেলা মোঃ আমজাদ এর জন্য মামুলি ব্যাপার। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে পুরো এলাকায় তাদের এসব প্রতারণা জালিয়াতির ঘটনা কমবেশি সকলের মুখে মুখে প্রচলিত হয়ে গেছে। অত্যন্ত নিখুঁতভাবে তারা এসব করে থাকে। নিজের স্ত্রীকে নিয়ে অনুষ্ঠানে যাওয়ার নাম করে বোনের কাছ থেকে স্বর্নের অলংকার এনে সেগুলো স্বর্নের দোকানে বিক্রি করে কয়েক লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়ার মত জঘন্য কাজ করতেও একটু দ্বিধাবোধ করেননি মোঃ আমজাদ।
কারখানার বাড়ীওয়ালার ভাড়া, বাসার বাড়ীওয়ালার ভাড়া, এলাকার দোকানের বাকি, শ্রমিকের মজুরি, শ্রমিকের খাবারের টাকা কিছুই পরিশোধ না করে তারা এখন এলাকা ছেড়ে অন্যত্র পালিয়ে যাওয়ার পরিকল্পনা করছেন বলে জানা গেছে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর