কুলিয়ারচর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান’র কিছু কথা

বুধবার ২৫ জানুয়ারি ০১:০০ টার দিকে Yasir Miah নামক একটি ফেসবুক আইডি থেকে কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও কুলিয়ারচর উপজেলা শিক্ষা কমিটির সভাপতি আলহাজ্ব ইয়াছির মিয়া ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের উদ্দেশ্যে একটি লিখা পোস্ট করে লিখেছেন,

প্রিয় কুলিয়ারচরবাসী, আসসালামু আলাইকুম। গত দুইদিন যাবৎ আমার একটা বক্তব্যের আংশিক ভিডিও ফেইসবুকে কেউ উদ্দেশ্য প্রণোদিত ভাবে প্রচার করছে, আপনারা সবাই জানেন আমি একজন সম্ভান্ত মুসলিম পরিবারের সন্তান এবং আমি নিজে জানি, আমি একজন ধর্মভীরু মানুষ। আমার নিজ উদ্যোগে অনেক মসজিদ মাদ্রাসা নির্মাণ, পুনঃ নির্মাণ বা আংশিক নির্মাণে শরিক হওয়ার তৌফিক এবং সুযোগ আল্লাহ দিয়েছেন।আমি সেটা গোপনেই করেছি যেখানে করেছি কেবলমাত্র সেখানকার সংশ্লিষ্টরাই জানেন।

গত ২১জানুয়ারি-২০২৩ ইং তারিখ কুলিয়ারচর উপজেলার সকল শিক্ষকদের নিয়ে একটি মিটিং ছিলো, বিভিন্ন শিক্ষকদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দিতে গিয়ে অনেক কথা বলতে হয়েছে, বোঝাতে হয়েছে। প্রায় ৩০ মিনিট বক্তব্য থেকে তিন মিনিটের বক্তব্য এডিট করে কিছু কুচক্রী লোক ভুলভাবে প্রচার করে আমাকে এবং কুলিয়ারচর বাসীকে এক বিভ্রান্তিকর পরিস্থিতির মধ্যে ফেলেছে। যেটা আমার বা আপনাদের করোরই মোটেও কাম্য নয়। আমি যে কথাগুলো বলতে চেয়েছি বা বোঝাতে চেয়েছি এই অল্প সময়ের ভিডিওতে সেটা প্রকাশ পায়নি।

কুলিয়ারচরের আলেম উলামাদের সাথে আমার আত্মায় সম্পর্ক, অনেক নিবিড় সম্পর্ক সেটা দীর্ঘদিনের। আমি মনে প্রাণে জানি, আমি আমার ধর্ম বা আমার ধর্মের শিক্ষা বা আমার ধর্মের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান নিয়ে কোন নেগেটিভ কথা বলা তো অনেক পরের বিষয়, আমি সেটা চিন্তাও করতে পারিনা। তবুও আমার কষ্ট হচ্ছে এই ভেবে যে, এতোদিনের আলেম উলামাদের সাথে আমার যা সম্পর্ক তারা এবং ধর্মপ্রাণ মুসলমান ভাই বোনেরা কষ্ট পেয়েছেন। আমি জানি আমি কখনোই আমার ধর্ম বা শিক্ষক বা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে ছোট করে কথা বলিনি। আমি যে সকল কথা বলতে চেয়েছিলাম তা সুন্দর ভাবে প্রকাশ পায়নি, তবুও আমার এই আংশিক বক্তব্যে যদি কেউ কষ্ট পেয়ে থাকেন, তাহলে আমি অন্তরিক ভাবে দুঃখিত।

আমি কেমন মানুষ সেটা কুলিয়ারচরের সবাই অবগত আছেন। তাই বলবো বিষয়টা ক্ষমা সুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন।

আমি একজন মুসলমান হয়ে মনে প্রানে বিশ্বাস করি, মাদ্রাসা শিক্ষার গুরুত্ব এই অস্থির সমাজে খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা রাখতে পারে। এজন্যই বিভিন্ন মসজিদ মাদ্রাসার উন্নয়নে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছি এবং আমরণ করে যাব ইনশাআল্লাহ।

আপনারা অবশ্যই অবগত আছেন যে, মহান আল্লাহর প্রতি অনুগত থেকে, ধর্মকে অন্তরে ধারণ করে, বিভিন্ন প্রতিকুল অবস্থা পেরিয়ে আজকে আমি সংসদ সদস্য ও বিসিবি সভাপতি আলহাজ্ব নাজমুল হাসান পাপন ভাইয়ের একজন কর্মী হয়ে আপনাদের খাদেম হিসেবে কাজ করার জন্য নির্বাচিত হয়েছি। আমি আপনাদের কল্যাণে কাজ করে যেতে চাই। ভালো থাকবেন সবাই। জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু।

#প্রথম সংবাদ

- Advertisement -

সর্বশেষ সংবাদ