চাঞ্চল্যকর “রাবেয়া” হত্যার আসামী গ্রেফতার করেছে হালিশহর থানা পুলিশ

চট্টগ্রাম নগরীর হালিশহরে গৃহবধূ রাবেয়া আক্তারকে (২৭) গলা কেটে হত্যার ঘটনায় পলাতক স্বামী
মো:জামিনসহ (২৪) দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে হালিশহর থানা পুলিশ।

গতকাল সোমবার রাতে কিশোরগঞ্জের নিকলী থানার কারপাশা ইউনিয়ন পরিষদের সামনে থেকে জামিনকে ও নগরীর হালিশহর এলাকা থেকে মো. মোস্তফাকে (২২) গ্রেপ্তার করা হয়। দুজনই কিশোরগঞ্জের নিকলী থানার বাসিন্দা। 

হালিশহর থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ জহির উদ্দিন বলেন
স্ত্রীকে খুনের পর জামিন নিজ এলাকা কিশোরগঞ্জে আত্মগোপনে থাকেন। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তথ্য পেয়ে পরে পুলিশের একটি টিম ঐ এলাকার কালচার এর সাথে ছদ্মবেশ ধারন করে অভিযান চালিয়ে তাঁকে গ্রেপ্তার করে।

উপপরিদর্শক (এসআই) সতেজ বড়ুয়া বলেন, জামিনকে গ্রেপ্তারের পর এই খুনের সঙ্গে মোস্তফার সম্পৃক্ততার বিষয়ে তথ্য পাওয়া যায়। পরে গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) হালিশহর এলাকা থেকে মোস্তফাকে গ্রেপ্তার করে। মোস্তফা নিহত রাবেয়ার ছোট বোনের স্বামী। 

সুফল কুমার দাস বলেন, আসামিদের দেওয়া তথ্যানুযায়ী খুনে ব্যবহৃত ছুরিটি পরে নগরীর হালিশহরে খালপাড় এলাকায় একটি নালা থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। খুনের পর ছুরিটি ওই নালায় ফেলে দিয়েছিল মোস্তফা। 

নিহতের স্বামী জামিন পুলিশকে জানায়, রাবেয়ার আগেও দুটি বিয়ে হয়েছিল। ওই ঘরের সন্তান রয়েছে। ১১ মাস আগে তাঁর সঙ্গে রাবেয়ার বিয়ে হয়। পরিকল্পনা অনুযায়ী মোস্তফাকে সঙ্গে নিয়ে স্ত্রীকে খুন করে পালিয়ে যায় জামিন। 

এর আগে গত শনিবার হালিশহর থানাধীন শিশু পল্লি জামে মসজিদ এলাকায় একটি ভবনের ভাড়া বাসায় খুন হন রাবেয়া আক্তার (২৭)। তাঁকে গলা কেটে হত্যা করা হয় বলে জানায় পুলিশ। এ ঘটনায় রোববার হালিশহর থানায় একটি হত্যা মামলা হয়। নিহত নারী রাবেয়া হাটহাজারী উপজেলার বাসিন্দা।

#প্রথম সংবাদ

- Advertisement -

সর্বশেষ সংবাদ