আলোর সংবাদের কক্সবাজার জেলা প্রতিনিধির বিরুদ্ধে মিথ্যা সংবাদের প্রতিবাদ

আলোর সংবাদ নিউজ (অনলাইন) পোর্টালের কক্সবাজার জেলা প্রতিনিধি মোঃআরকানের নামে মিথ্যা অপপ্রচার ও মিথ্যা সংবাদের প্রতিবাদ। কক্সবাজারের স্থানীয় “দৈনিক মেহেদী ” ও বিবিসি একাত্তর সহ কয়েকটি অনলাইন পোর্টালে “পেকুয়ায় আলোর সংবাদ পত্রিকার সাংবাদিক পরিচয়ে আরকানের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজি অভিযোগ ” শিরোনামে প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ ও বিবৃতি।

উক্ত সংবাদ ছিল সম্পূর্ণ মিথ্যা, বানোয়াট ও বিভ্রান্তকর।
উক্ত সংবাদে লেখা হয়েছে শহীদ জিয়াউর রহমান উপকূলীয় কলেজের রোভার স্কউট দলের সিনিয়র রোভার মেট তাফসিরুল ইসলাম ধর্ষণ মামলায় জেল হাজতে গেলে আমি সাংবাদিক পরিচয়ে তাঁর বাড়ীতে গিয়ে তাঁর মাকে হুমকি দিয়েছি ও চাঁদাবাজি করেছি, এই কথা সম্পূর্ণ মিথ্যা ও বানোয়াট আমার বিরুদ্ধে অপপ্রচার ছাড়া কিছুই নয়। আমি তাঁর বাড়ীতে যাইওনি তাঁর মায়ের সাথে কথাও বলেনি এটা সম্পূর্ণ মিথ্যা। এটা সত্য যখন তাফসির ধর্ষণ মামলার আসামী হওয়ার পরও জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে স্কাউটের অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করে আরো করানোর জন্য নাম পাঠায় শহীদ জিয়াউর রহমান উপকূলীয় কলেজের প্রভাষক ড. জাকির হাওলাদার।

তখন এটা নিয়ে বিভিন্ন মানুষ সমালোচনা করে। তখন দেখি স্কাউটের মান মর্যাদা হানি হয়, আমি স্কাউটের সদস্য হিসাবে আমার খারাপ লাগে। এত স্কাউটের সদস্য থাকার পরও কেন একজন ধর্ষণ মামলার আসামীকে জাতীয় আন্তর্জাতিক পর্যায়ে অনুষ্ঠানে পাঠাতে হবে। বিষয়টি জাকের হাওলাদারকে জিজ্ঞেস করলে সে রেগে যায়।পরে জানতে পারি জাকির হাওলাদার মোটা অংকের টাকা নিয়ে তাফসিরকে বিভিন্ন প্রোগ্রামে পাঠাচ্ছে। আমি বিষয়টি প্রতিবাদ করেছি। এর পর থেকে আমার সাথে উঠেপড়ে লেগেছে।

২০২০সালে কলেজে পড়ার সময় আমাকে বহিষ্কার করা হয় নি। এখন ড. জাকির হাওলাদার আগের তারিখ দিয়ে ভূয়া বহিষ্কার দেখাচ্ছে। এগুলা সব ভন্ডামি ছাড়া কিছু নয়।আমি এসব মিথ্যা ও বানোয়াট বিভ্রান্ত কর সংবাদের প্রতিবাদ জানাচ্ছি। মিথ্যা অপপ্রচারে বিভ্রান্ত না হওয়ার জন্য সবাইকে অনুরোধ করছি।

#প্রথম সংবাদ

- Advertisement -

সর্বশেষ সংবাদ