প্রতীক্ষার প্রহরে

মিলি রায়।।

আমার কবিতায় প্রেমের পদাবলী হও তুমি

ষড়ঋতু হাতে নিয়ে ঠায় দাঁড়িয়ে আছি
অনন্ত পথের ধারে
তুমি আসবে বলে
মাতাল শিশিরে মুখ গুঁজে দিয়ে
ম্যাপল পাতার মতো অলস পড়ে আছি
উৎসর্গীকৃত মহাকাল মাঝে রবিবাসরীয় প্রহরে।

সবুজ আমের মতো ভোরের কাঁচামিঠে নরম আলোয়
নির্জনতা ভেঙে নেমে আসছে আশ্চর্য পাখির দল
তিরতিরে একফালি সুখের হাওয়া
বয়ে যাচ্ছে আ-শরীর জুড়ে চন্দ্রবিন্দু জীবনে
ঝুপ করে ভাঙছে বুকের পাড় মৃন্ময়ী ঘ্রানে।

হিজলের জলে মুদ্রিত নীলে
সান্ধ্য সাধনার সংহিতা’য়
জুড়ে যাচ্ছে ভালোবাসার রাগীনি সুবর্ণ শব্দবন্ধে
নববধূ মেঘে জলছাপ এঁকে যায় মন্দাক্রান্তার সুর
উজান স্রোত ভাসিয়ে নিয়ে যায় অমোঘ লক্ষ্যে।

ভেসে যাচ্ছে সময় গুঁড়ো গুঁড়ো হয়ে
সন্ধ্যা নামছে ধীরে, সাদা বকের দীঘল ডানায়
একটা বিকেল ক্লান্ত হচ্ছে তরুবীথি ছায়ায়

শরীরের ছায়া পড়ে জানি,
মনের ও কি ছায়া পড়ে
দেহের আঙিনায় ?

#প্রথম সংবাদ

- Advertisement -

সর্বশেষ সংবাদ