কেন্দুয়ায় স্কুল শিক্ষার্থী নয়ন হত্যার বিচারের দাবিতে সাংবাদিক সম্মেলন

নেত্রকোণার কেন্দুয়া উপজেলার মাসকা ইউপি’র পানগাঁও গ্রামের অটোচালক আ. ওয়াদুদের ছেলে ও পানগাঁও-পনকেন্দুয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণির ছাত্র নিহত নয়ন হত্যার বিচারের দাবীতে ৭জানুয়ারি কেন্দুয়া প্রেসক্লাব কার্যালয়ে সাংবাদিক সম্মেলন করেছে নিহতের পরিবার।

এসময় সাংবাদিক সম্মেলনে নিহতের পিতা আ. ওয়াদুদ, চাচা সবুজ মিয়া, দাদী জহুরা খাতুন ও মাসকা ইউপি’র ৯নং ওয়ার্ড সদস্য মো. এনামুল উপস্থিত ছিলেন।
মামলার বিবরনে জানা যায়, উপজেলার মাসকা ইউপি’র পানগাঁও গ্রামের অটো চালক আ. ওয়াদুদের ছেলে নয়ন মিয়া (১২) কে গত ৬নভেম্বর দিবাগত রাতে পার্শ্ববর্তী বাড়ির সাবেক ইউপি সদস্য সবুজ মিয়ার ছেলে মোজাহিদ, আব্দুর রাজ্জাকের ছেলে আবু রায়হান, লিটন মিয়ার ছেলে আসাদুল ও হাদিছ মিয়ার ছেলে আরাধন নয়নকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে নৃশংসভাবে হত্যা করে নির্মাণধীন আনোয়ারের বাড়ির পাশে ফেলে রাখে।

কান্না জড়িত কণ্ঠে সাংবাদিক সম্মেলনে নিহতের বাবা আ. ওয়াদুদ বলেন, ছেলে হত্যার বিচার চেয়ে গত, ৯নভেম্বর কেন্দুয়া থানায় হাজির হয়ে ৪জনের নাম করে উল্লেখ করে অজ্ঞাতনামা আরো ৬/৭ জনকে আসামী করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করি। তাঁরা আরো বলেন-আসামীরা জামিনে এসে তাদের পরিবারের লোকজনদের সঙ্গে নিয়ে নিহতের পরিবার এবং মামলার সাক্ষীদের বিভিন্ন সময়ে বিভিন্নভাবে ভয়ভীতি দেখিয়ে মামলা তুলে নেয়ার জন্য হুমকি দিচ্ছে। নিহতের পিতা বলেন- বর্তমানে আমরা ও সাক্ষীগণ চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি, এই মর্মে আমি বাদী হয়ে গত ১৯ ডিসেম্বর একটি সাধারণ ডাযেরি করেছি, কেন্দুয়া থানার সাধারন ডায়েরি নং ৯০৮। এসময় প্রশাসনের কাছে আকুল আবেদন জানিয়ে নয়ন হত্যাকারিদের দ্রুত আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক বিচারের দাবী জানান নিহতের বাবা।

#প্রথম সংবাদ

- Advertisement -

সর্বশেষ সংবাদ