আইসিটি প্রতিমন্ত্রীর টেন মিনিট স্কুলের ‘অনলাইন ব্যাচ ২০২৩’ এর উন্মোচন

নতুন বছরে দেশের শীর্ষ ই-লার্নিং প্ল্যাটফর্ম টেন মিনিট স্কুল নিয়ে এলো তাদের নতুন একাডেমিক প্রোডাক্ট ‘অনলাইন ব্যাচ ২০২৩’। ৬ষ্ঠ-১০ম শ্রেণির বোর্ড পাঠ্যক্রমের পড়াশোনার সাথে সামঞ্জস্য রেখে সম্পূর্ণ ও কার্যকরী পথপ্রদর্শক হিসেবে কাজ করবে। টেন মিনিট স্কুল অ্যাপেই হওয়া লাইভ ক্লাসগুলো এমনভাবে প্ল্যান করা হয়েছে যাতে শিক্ষার্থীদের ক্লাসে মনোযোগের কোনোরকম বিচ্যুতি না ঘটে।

শিক্ষার্থীরা যেন অভিভাবকদের তত্ত্বাবধানে ঘরে বসেই স্কুল-পরবর্তী পড়াশোনা করতে পারে এমন চিন্তা থেকেই টেন মিনিট স্কুল প্ল্যান করে অনলাইন ব্যাচের। যেখানে বছরজুড়ে শিক্ষক হিসেবে থাকছেন ১৫০ জনেরও বেশি বুয়েট, মেডিকেল, ঢাবিসহ দেশের স্বনামধন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের বর্তমান ও প্রাক্তন ছাত্র-ছাত্রীরা, যারা দীর্ঘদিন ধরে অফলাইন ও অনলাইনে শিক্ষার্থীদের পড়াচ্ছেন।

অনলাইন ব্যাচে ৬ষ্ঠ-১০ম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের পড়ানো হবে মোট ৬টি করে বিষয়। ৬ষ্ঠ-৮ম শ্রেণিতে সপ্তাহে ৬ দিন করে মাসে ২২টি ক্লাস দিয়ে সাজানো হয়েছে সম্পূর্ণ সিলেবাসের রুটিন। ৯ম-১০ম শ্রেণির জন্য সপ্তাহে ৫ দিন করে মাসে মোট ৪০টি ক্লাস থাকবে। রুটিনমাফিক প্ল্যানে সম্পূর্ণ সিলেবাস শেষ করা হবে ৮ মাসে। সিলেবাস শেষ হবার পরে শিক্ষার্থীরা শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি নিতে পারবে রিভিশন ও প্রশ্ন-সমাধান ক্লাসের মাধ্যমে। এছাড়াও নিজের প্রস্তুতি যাচাই করে নিতে পারবে নিজের সুবিধামতো সময়ে মডেল টেস্ট দেওয়ার মাধ্যমে।

অনলাইন ব্যাচের প্রতিটি লাইভ ক্লাসে থাকবেন দুই জন শিক্ষক, একজন সরাসরি ক্লাস নিবেন, দ্বিতীয়জন শিক্ষার্থীদের বিষয়ভিত্তিক বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দিবেন। ক্লাস শেষ হয়ে যাওয়ার ৩০ মিনিট পরেও অ্যাপে মেসেজ করার মাধ্যমে যেকোনো প্রশ্নের উত্তর পাওয়ার সুযোগ থাকবে। প্রতিটি লাইভ ক্লাস শেষেই শিক্ষার্থীরা পেয়ে যাবে সেই ক্লাসের লেকচার শিট এবং লাইভ ক্লাসের রেকর্ডেড ভিডিও। ক্লাস শেষে থাকবে হোমওয়ার্ক, এবং সাপ্তাহিক পরীক্ষা। এই হোমওয়ার্ক ও পরীক্ষার রিপোর্টের ভিত্তিতে দেওয়া হবে প্রোগ্রেস রিপোর্ট, যা দেখে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকগণ যাচাই করতে পারবেন পড়াশোনা অগ্রগতি। এছাড়াও প্রতি মাসে অভিভাবকদের সাথে থাকবে মতবিনিময় সভা।

টেন মিনিট স্কুল ২০১৫ সাল থেকে বাংলাদেশের শিক্ষার্থীদের জন্য কাজ শুরু করে। প্রথমে একাডেমিক বিষয় শিক্ষার্থীদের পাঠদানের মাধ্যমে তাদের যাত্রা শুরু করলেও বর্তমানে বিভিন্ন স্কিল ডেভেলপমেন্ট, ও চাকরির প্রস্তুতি কোর্সের সমন্বয়ে দেশের লক্ষাধিক শিক্ষার্থীদের পাঠদান করছে এবং তাদেরকে নিজ নিজ ক্ষেত্রে বিকশিত করতে সহায়তা করছে।

২০২২ সালের এসএসসি পরীক্ষায় টেন মিনিট স্কুলের সাথে প্রস্তুতি নিয়েছিলো প্রায় ৭ হাজার শিক্ষার্থী। তাদের মধ্যে জিপিএ ৫ পেয়েছে ৫,৫৬০ জন শিক্ষার্থী। তাদের মধ্যে প্রায় ৪ হাজার শিক্ষার্থী সব বিষয়ে জিপিএ ৫ পাওয়ার গৌরব অর্জন করে।

গত ৩ জানুয়ারি, মঙ্গলবার ঢাকার আইসিটি টাওয়ারের বিসিসি অডিটোরিয়ামে এক জমকালো অনুষ্ঠানের মাধ্যমে উন্মোচন করা হয় টেন মিনিট স্কুলের ‘অনলাইন ব্যাচ ২০২৩’ এর। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী জনাব জুনাইদ আহ্‌মেদ পলক, এমপি। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন এসবিকে টেক ভেঞ্চারস্‌ এর প্রতিষ্ঠাতা ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক সোনিয়া বশির কবির, এবং স্টার্টআপ বাংলাদেশ লিমিটেড-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক সামি আহমেদ। এছাড়া আরো উপস্থিত ছিলেন টেন মিনিট স্কুলের চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার ও ফাউন্ডার আয়মান সাদিক, চিফ অপারেটিং অফিসার ও কো-ফাউন্ডার মির্জা সালমান হোসেন বেগ, চিফ টেকনোলজি অফিসার ও কো-ফাউন্ডার আবদুল্লাহ আবইয়াদ- সহ প্রতিষ্ঠানটির মেধাবী কলাকুশলীরা। উক্ত অনুষ্ঠানে নতুন এই একাডেমিক প্রোডাক্টটি সম্পর্কে বিস্তারিত ধারণাও দেওয়া হয়।

#প্রথম সংবাদ

- Advertisement -

সর্বশেষ সংবাদ