সোনাগাজীতে বীর নিবাস নির্মাণে বাঁধা ও হয়রানির অভিযোগ

ফেনীর সোনাগাজীতে একটি বীর মুক্তিযোদ্ধা পরিবারকে হুমকি, নানাভাবে হয়রানি ও বীর নিবাস নির্মাণ কাজে বাঁধা দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

সরেজমিন পরিদর্শন করে জানা যায়, সোনাগাজী উপজেলার মতিগঞ্জ ইউনিয়নের সাতবাড়ীয়া গ্রামের আবদুল আজিজ কেরানী বাড়ীর প্রয়াত মুক্তিযোদ্ধা কমাণ্ডার গোলাম রসুল (মুক্তিযোদ্ধা নং- ০১৩০০০০২০১১ লাল মুক্তিবার্তা গেজেট নং- ০২১১০৫১৮২) এর পরিবারের বসবাসের জন্য তার বিধবা স্ত্রী ফেরদৌস আরা বেগমের নামে সরকারি ভাবে বরাদ্দকৃত বীর নিবাস মুবিম/পিডি/অ,বী,মু,আ,নি,প্র/ম- ০১২০২১/৬৩৮ নং স্মারকে বরাদ্দকৃত ঘরের ক্রমিক নং- ২৫, মৃত মুক্তিযোদ্ধা কমাণ্ডার গোলাম রসুলের মালিকানাধীন সাতবাড়ীয়া মৌজার ১০১ নং খতিয়ানের অন্তর্ভুক্ত নিজ মালিকীয় ৮৫৩ ও ০৯২১ দাগ (বাড়ী ও ভিটি) ২৫/৩/১৯৭২ সালে গোলাম রসুলের নির্মিত টিনসেট ঘরটি ভেঙে সেই স্থানে বীর নিবাস নির্মাণ কাজ শুরু করলে (২৮শে ডিসেম্বর বুধবার সকালে) একই বাড়ীর প্রতিপক্ষ জহির আব্বাস স্বপন, আনোয়ার শাহাদাত মঞ্জুর, নাসির আব্বাস রিপন ও মোকাদ্দেছ আব্বাস সিপন সহ তাদের লোকজন বাঁধা সৃষ্টি করে ও প্রকাশ্যে প্রাণনাশের হুমকি ধমকি দিতে থাকে।

মুক্তিযোদ্ধা সন্তান সানী জানান- ২০০১ সালের পর থেকে তারা নানাভাবে নির্যাতিত ও হয়রানির শিকার হয়েছেন। ইতিমধ্যে তিনি তাকে হুমকি ধমকি দেওয়া ও তার ঘরবাড়ি জবরদখল করার চেষ্টা ও বীর নিবাস নির্মাণে বিঘ্ন সৃষ্টি করায় ও সোনাগাজী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ বরাবর লিখিত অভিযোগ নং- ৩৫৫ তারিখ ০৭/০৬/২০২২ ইং ও পুলিশ সুপার ফেনী বরাবর লিখিত অভিযোগ নং- ১৬৩৭- ১৫/১২/২০২২ ইং দায়ের করা হয়। ফেনী-২ আসনের সাংসদ নিজাম উদ্দিন হাজারীর নিকট ১৭ই নভেম্বর লিখিতভাবে বীর নিবাস নির্মাণ কাজে সহযোগিতা কামনা করা হয়।

প্রতিপক্ষ জহির আব্বাস স্বপন বলেন, উক্ত ঘরে তারা বসবাস করেন, সানী ও তার লোকজনের বিরুদ্ধে ঘর ভাঙা ও তার পরিবারের সদস্যদের মারধোর করার অভিযোগে মামলা করবেন।

মুক্তিযোদ্ধা সন্তান রাইসুল কায়েস সানীর অভিযোগের ভিত্তিতে সোনাগাজী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ খালেদ হোসেন সহ পুলিশ সদস্যগণ (২৮শে ডিসেম্বর) সকালে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে উভয়পক্ষকে শান্তি শৃঙ্খলা বজায় রাখতে বলা হয় এবং তদন্ত সাপেক্ষে পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান।

#প্রথম সংবাদ

- Advertisement -

সর্বশেষ সংবাদ