কেন্দুয়ায় গরু চুরির ঘটনায় অভিযোগ দায়ের

নেত্রকোণা জেলার কেন্দুয়া উপজেলার সান্দিকোনা ইউপি’র ডাউকি গ্রামের নূর মোহাম্মদ নয়ন নামের এক কৃষকের গোয়াল ঘর থেকে ধানের কোড়া রঙের দেশী জাতের ৮মাসের ১টি গর্ভবতী গাভী গরু ও কালো রঙের ১টি ক্রস বকনা বাছুর কে বা কারা গত ২৪ ডিসেম্বর ভোর রাতে চুরি করে নিয়ে গেছে। অনেক খোঁজাখুঁজির পরও গরু ২টি না পেয়ে গরুর মালিক নূর মোহাম্মদ নয়ন বাদী হয়ে ঐ দিনই কেন্দুয়া থানায় হাজির হয়ে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার সান্দিকোণা ইউপি’র ডাউকি গ্রামের মৃত লেহাজ উদ্দিনের ছেলে ও সান্দিকোনা বাজার পরিচালনা কমিটির সদস্য নূর মোহাম্মদ নয়ন গত ২৪ডিসেম্বর রাতে বসতবাড়ির দোচালা টিনের গোয়াল ঘরের ভিতরে খুঁটির সাথে ৮মাসের গর্ভবতী একটি গাভী গরু ও ১টি ক্রস বকনা বাছুর বেঁধে রেখে খাওয়া দাওয়া শেষ করে শুইয়া মোবাইল ফোন দেখতে থাকেন। ঘটনার সময় ও তারিখে ২৪ডিসেম্বর ভোর আনুমানিক ৪টার দিকে প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে নয়ন মিয়া বসতঘর থেকে বাহির হলে দেখতে পান গোয়াল ঘরের দরজা লাগানো এবং গরু গুলো ঘাস খাইতেছে। এরপর ভোর আনুমানিক ৫টা ৫০মিনিটের সময় ২নং সাক্ষী নাজমুল ইসলাম ফজরের নামাজ আদায় করতে সজাগ হলে দেখেন গোয়ালঘরের দরজা খোলা এবং গরু গুলো নেই, তখন ডাক চিৎকার আরম্ভ করিলে আশেপাশের লোকজন সজাগ হয়ে দৌড়ে এসে উপরোক্ত ঘটনা প্রত্যক্ষ করেন ও চারদিকে খোঁজাখুজিঁ করেন ততক্ষণে গরুগুলি নিয়ে চোর পালিয়ে যায়। ধারনা করা হচ্ছে অজ্ঞাত নামা গরু চোরেরা ভোর ৪টা হতে ৫টা ৫০মিনিটের যে কোন সময়ে বসতঘরে প্রবেশ করে গোয়াল ঘরের দরজায় থাকা বাঁশ কৌশলে খুলে ভেতরে ঢুকে গরু গুলো চুরি করে নিয়ে যায়। অনেক খোঁজাখুঁজি করেও গরু ২টি না পেয়ে ভুক্তভোগী এখন দিশেহারা।
কেন্দুয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আলী হোসেন পিপিএম জানান- গরু চুরির ঘটনায় একটা অভিযোগ পেয়েছি, চোরসহ গরু গুলো উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।

#প্রথম সংবাদ

- Advertisement -

সর্বশেষ সংবাদ