নারায়ণগঞ্জে জেলা পরিষদের সদস্যের সরকারি জায়গা বহুতল ভবন নির্মাণ

নারায়ণগঞ্জের বন্দর উপজেলার লাঙ্গল বন বাসস্ট্যান্ড এলাকায় মসজিদের পাশেই, ছিরায় পাড়া ত্রান মন্ত্রণালয়ের সরকারি কলোনির জায়গা দখল করে বহুতল ভবন নির্মাণ শুরু করছে।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদের ২নং ওয়ার্ডের সদস্য মাসুম আহমেদ জেলা পরিষদের প্রভাব খাটিয়ে বন্দর উপজেলার ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের পাশে থাকা লাঙ্গলবন্দ বাসস্ট্যান্ডের মসজিদের পাশেই লাঙ্গলবন্দ মৌজা ও জাঙ্গাল মৌজা অন্তর্গত চিরইপাড়া ( সরকারি কলোনি) ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন সাড়ে ১২ একরের জায়গার কিছু অংশে বহুতল ভবন নির্মাণ শুরু করছে ।

স্থানীয়রা জানাযায়, ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের পাশে বর্তমান নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদের ২ নং ওয়ার্ডের সদস্য ও ধামগড় ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মাসুম আহমেদ ২২ শতাংশ জমি ক্রয় করেন। যার মধ্যে তিনি ২৭ শতাংশ জায়গার ভোগদখলে আছেন। তার মধ্যে ৫ শতাংশ জায়গা তিনি কোন মিউটিশন করা নাই। তাছাড়া তার সাথে ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন সরকারি জায়গায় থাকায় জেলা পরিষদের প্রভাব খাটিয়ে দখল করে বহুতল ভবন নির্মাণ করছেন তিনি।

এবং নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাদিকব্যাক্তি সাংবাদিকদের জানান, সাবেক চেয়ারম্যান ও বর্তমান জেলা পরিষদের সদস্য। তিনি আমাদের কোন ক্ষতি করতে পারে, কিন্তু আপনারা যে খবর নেন, কামতাল মালিভিটা সহ ব্রহ্মপুত্র নদীর পাড়ে আবাসিক এলাকায় কৃষকের জমি দখল করে গড়ে তুলেছেন (এইচ আর বি) অবৈধ ইটভাটা।

এ বিষয়ে নারায়ণগঞ্জ জেলা ত্রাণ ও পূর্ণবাসন কর্মকর্তা রেজাউল করিম গ্লোবাল টেলিভিশনকে জানান, এই জায়গাটি আমাদের ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের আন্ডারে, আমরা কাজ বন্ধ করে দিয়েছিলাম। তিনি পুনরায় আবার কাজ শুরু করেছেন আমরা শুনতে পেরেছি ও আমি বন্দর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে ব্যাপারটা জানিয়েছি তিনি বলেছেন আমরা ব্যবস্থা নিচ্ছি।

বন্দর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কুদ-রত-এ খোদা, মোটুফোনে গ্লোবাল টেলিভিশনকে জানান, এই বিষয়টা আমি জানতে পেরেছি গত ৪ অক্টোবর আমি লোক পাঠিয়ে এবং কাজ বন্ধ করে দিয়েছি।

নকশা বহিভূত ও অনুমতি ছাড়া ইমারত নির্মাণ করায় এরই মধ্যে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (রাজউক) তাকে নোটিশ দিয়েছে।

এ বিষয়ে নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদের সদস্য মাসুম আহমেদ এর নিকট মুঠোফোনে জানতে চাইলে তিনি জানান, জায়গাটি তার নিজের। তবে কাগজপত্রের কাপি চাইলে তিনি পরে দিবেন বলে জানান এবং রাজউক এর অনুমতি ছাড়া ভবন নির্মাণের জন্য নোটিশ দিয়েছে রাজধানী উন্নয় কর্তৃপক্ষ রাজউক এর সত্যতা স্বীকার করেছেন তিনি।

Related Articles

Stay Connected

0FansLike
0FollowersFollow
0SubscribersSubscribe
- Advertisement -spot_img

Latest Articles