আশুলিয়ায় ডিস ও ইন্টারনেট লাইনের বৈধ সংযোগ কর্তন

Link Copied!

রাজধানীর অদূরে সাভার আশুলিয়ার ইয়ারপুর ইউনিয়ন জামগড়া ধীরোজ গার্মেন্টস এর পিছনে মোঃ সুমন হোসেন মীরের ডিস ও ইন্টারনেট লাইনের বৈধ সংযোগ আবারও কর্তন করেন জয়নাল ও মোকলেছের নেতৃত্বে প্রায় ৩০/৪০ জনের একটি দল আজ ১৯ জুন ২০২২ইং রোজ রবিবার দুপুরে দিকে আশুলিয়ার ইয়ারপুরের মোল্লা বাজার ধীরোজ গার্মেন্টস এর পিছনে জয়নাল ও মোকলেছের নেতৃত্বে প্রায় ৩০/৪০ জনের একটি দল জামগড়ার ক্যাবল ব্যবসায়ী মোঃ সুমন হোসেন মীরের বৈধ ডিস ও ইন্টারনেট লাইনের তার কেটে দেয়।

এ ব্যাপারে ভুক্তভোগী মোঃ সুমন হোসেন মীর জানান আজ দুপুর- ১২টা ১৩ থেকে ২০মিনিটের মধ্যে আমার প্রায় ২০০/৩০০ সংযোগ কেটে দেয় আমি আশুলিয়া থানায় সাধারণ ডাইরি করেছি এবং তদন্ত সাপেক্ষে দ্রুত গ্রেপ্তারের জোর দাবি জানাচ্ছি এ ব্যাপারে মোঃ সুমন হোসেন মীর আরও বলেন মোকলেছ ও জয়নাল এর নেতৃত্বে পুরো জামগড়া এলাকায় ত্রাস এর রাজত্ব চলছে এদের নেতৃত্বে এলাকায় মারামারি হানাহানি লেগেই থাকে, আমরা সাধারণ মানুষ এ ধরনের অপরাধীদের হাত থেকে মুক্তি চাই।

এবিষয়ে স্থানীয় বেশ কয়েকজনের কাছে জানতে চাইলে স্থানীয়রা বলে ১০/১২ দিন আগেও জয়নাল, মোকলেছ ও তার ছোট ভাই রুবেলের নেতৃত্বে ইয়ারপুর ইউনিয়ন ১নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক মোঃ রনীর বাসায় গিয়ে রনীর উপর হামলা চালায় মারধর করে এবং ৩ লক্ষ টাকা নিয়ে দ্রুত পালিয়ে যায় ঐ ঘটনায় মোকলেছ, জয়নাল ও রুবেল সহ ১৫/২০ জনের নামে আশুলিয়া থানায় একটি মামলা হয়েছে মামলা নং ৪০/৪২৮ ঐ মামলায় কদিন আগেই তাহারা জামিনে এসেছে,জামিনে এসে আবারও এলাকায় মারামারি হানাহানি শুরু করেছেন।

এলাকায় ওদের নেতৃত্বে সবসময় মারামারি হানাহানি কাটাকাটি লেগেই থাকে আমরা সাধারণ মানুষ ওদের বিরুদ্ধে কথা বলার সাহস সক্তি কোনটাই আমাদের নেই। কারণ ওরা খারাপ মানুষ ওদের সাথে আমরা সাহসে শক্তিতে কোনভাবেই পারি না তবে আমাদের একটাই দাবি আমরা এলাকাবাসী এ ধরণের অপরাধীদের হাত থেকে মুক্তি চাই।