রাঙামাটিতে ভারী বর্ষণে নিম্নাঞ্চল প্লাবিত

Link Copied!

টানা বৃষ্টিপাত, ভারী বর্ষণ ও পাহাড়ি অঞ্চলের আজানের পানি নেমে আসায় রাঙামাটি জেলা সদরসহ বাঘাইছড়ি উপজেলার বেশ কয়েকটি গ্রামে নিম্নাঞ্চলে প্লাবিত হয়েছে। প্রবল বৃষ্টিপাতে কাচালং নদীর পানি বিপদ সীমার উপর দিয়ে বয়ে চলেছে। থেমে থেমে টানা বৃষ্টিপাতের কারনে সাজেক ইউনিয়নের বাঘাইহাট বাজার, বাঘাইছড়ি পৌর এলাকাসহ বেশ কয়েকটি এলাকয় বন্যায় তলিয়ে গেছে। বন্যায় নিম্নাঞ্চল এলাকা প্লাবিত হয়ে পানিতে তলিয়ে গেছে। ফসলের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

টানা প্রবল বর্ষনে বাঘাইছড়ি-দিঘিনালা সড়কের উপর পাহাড় ধসের সম্ভাবনা রয়েছে। উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে পাহাড়ের পাদদেশে বসবাসকারী সকল জনগোষ্ঠীদেরকে মাইকিং করে সর্তকতা অবলম্বনে নিরাপদ স্থানে আশ্রয়কেন্দ্রে আশ্রয় নিতে অনুরোধ করা হচ্ছে। বাঘাইছড়ি উপজেলায় ১৪ টি আশ্রয়কেন্দ্র খোলা হয়েছে।

এদিকে, বাঘাইছড়ি নবনির্বাচিত পৌর মেয়র জমির হোসেন বন্যা কবলিত এলাকা পরিদর্শনকালে বলেন, বন্যায় কবলিত স্থানে উদ্ধার তৎপরতার জন্য নৌকা ও টলার বোট দিতে সম্মতি দিয়েছেন। পাশাপাশি বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থদের মাঝে সবধরনের সহযোগীতার আশ্বাস দিয়েছেন।

বাঘাইছড়ি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শরিফুল ইসলাম বলেন, প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবেলায় সবাইকে সর্তক থেকে প্রস্তুতি নিতে হবে। প্রবল বৃষ্টিপাতে প্রাণ রক্ষার পৌরসভার কয়েকটি এলাকার লোকজন আশ্রয় কেন্দ্রে আসতে শুরু করেছে। তাদের পালিত গবাদি পশু নিরাপদে উচু জায়গায় সরিয়ে নেয়া হয়েছে। উপজেলা প্রশাসন বন্যার আশংকায় সবধরনের প্রস্তুত রয়েছে বলে জানিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা।

অপরদিকে, টানা বর্ষণে কাপ্তাই উপজেলায় পাহাড় ধসের শঙ্কা দেখা দিয়েছে। পাহাড়ের পাদদেশে ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় বসবাসকারীকে আশ্রয়কেন্দ্রে চলে যেতে প্রশাসনের পক্ষ থেকে মাইকিং করে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

শনিবার (১৮ জুন) বিকেলে কাপ্তাই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুনতাসির জাহান উপজেলার কয়েকটি এলাকা ঘুরে বাড়ি বাড়ি গিয়ে ঝুঁকিপূর্ণভাবে বসবাসকারীদেরকে নিকটস্থ আশ্রয় কেন্দ্রে যাবার অনুরোধ জানান।

প্রসঙ্গত, কাপ্তাই ২০১৭ সালে পাহাড় ধসে ১৮ জনের মৃত্যু হয়।


রাঙামাটিতে থেমে থেমে টানা বৃষ্টিপাতের কারনে কাউখালীর ডাবুয়া, ফটিকছড়ি ইউনিয়ন, পানছড়ি ও ঘাগড়া ইউনিয়ন। নানিয়ারচরের কতুবছড়ি, বেতছড়ি, ঘিলাছড়ি। বিলাইছড়ির ফারুয়াসহ বেশ কয়েকটি স্থানের পাহাড় ধসের কিংবা বন্যার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে