ঢাকাবৃহস্পতিবার , ১২ মে ২০২২
  1. অপরাধ
  2. অর্থনীতি
  3. আইন আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. কৃষি ও প্রকৃতি
  6. ক্যাম্পাস
  7. খেলাধুলা
  8. চিকিৎসা ও স্বাস্থ্য
  9. জাতীয়
  10. তথ্য ও প্রযুক্তি
  11. প্রবাস বাংলা
  12. বিনোদন
  13. রাজনীতি
  14. শিক্ষা
  15. সম্পাদকীয়

গুজরাটে স্ত্রী হত্যা, যশোরের বসুন্দিয়া থেকে স্বামী আটক

সোহেল রানা। যশোর প্রতিনিধি।।
মে ১২, ২০২২ ৪:২২ অপরাহ্ণ
Link Copied!

ভারতের গুজরাটে নিজ স্ত্রী সালমা খাতুন (২৪) কে বিক্রির চেষ্টায় ব্যর্থ হয়ে হত্যা শেষে পালিয়ে আসা পলাতক স্বামী কামরুল (৩০) আটক করেছে জেলা গোয়েন্দা শাখা (ডিবি) পুলিশ।আটক কামরুল যশোর কোতয়ালী থানাধীন বানিয়ারগাতী গ্রামের ইউনুস আলীর ছেলে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে
যশোর জেলা গোয়েন্দা শাখার দেওয়া এক প্রেস বিজ্ঞপ্তি হতে জানা যায়,গত ১৫এপ্রিল কামরুল তার নিজ স্ত্রী সালমা খাতুনকে ফুসলিয়ে ভালো চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে ভারত নিয়ে যায়। পরবর্তী সময়ে গত ৮ মে কামরুল দেশে ফিরে আসলেও তার স্ত্রী ভারতে রযে যায়।

ভূক্তভোগী সালমার পরিবারের লোকজন কামরুলকে জিজ্ঞাসা শুরু করলে সে সকলের সাথে খারাপ আচরন করতে থাকে। এ ঘটনায় সালমা খাতুনের পিতা সহিদুল নিজে বাদী হয়ে কোতয়ালী মডেল থানায় মানব পাচার প্রতিরোধ ও দমন আইনে মামলা রুজু করে।যাহার মামলা নং-২৫ ও তারিখ ১১-০৫-২০২২ইং।

মামলাটি চাঞ্চল্যকর হওয়ায় যশোরের সুযোগ্য পুলিশ সুপার মামলাটির তদন্তভার ডিবি পুলিশকে প্রদান করেন। অতঃপর কোতয়ালী থানার মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও ডিবি পুলিশের (এসআই) মফিজুল ইসলামের নেতৃত্বে থানা ও ডিবি পুলিশের একটি চৌকস দল ১২ই মে রাতে কোতয়ালী থানাধীন বসুন্দিয়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে ভিকটিম সালমা খাতুনের পাচারকারী ও স্বামী কামরুল ইসলামকে আটক করে।

এসময় আসামীর ৩টি পাসপোর্ট, ভিকটিম সালমা খাতুনের পাসপোর্ট ও তার ব্যবহৃত মোবাইল ফোন উদ্ধার পূর্বক জব্দ করেন।প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আটক হওয়া স্বামী কামরুল জানান, গুজরাট রাজ্যের আনান্ধ জেলার ভালেজ থানা এলাকায় তার স্ত্রী সালমাকে আটকে রেখে বিক্রির চেষ্টা চালায়।

ব্যর্থ হলে সেখানে ভাড়া নেওয়া একটি বাসা বাড়ির মধ্যে সালমাকে প্রথমে নাকে মুখে আঘাত করে ও পরে তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে লাশ ফেলে রেখেই দেশে পালিয়ে চলে আসে।গ্রেফতারকৃত আসামীকে কোর্টে তোলার প্রস্তুতি চলমান রয়েছে।