কেন্দুয়ায় বৃদ্ধের মৃত্যুরহস্য নিয়ে পাল্টাপাল্টি অভিযোগ

Link Copied!

নেত্রকোণার কেন্দুয়ায় জালাল উদ্দীন (৬৫) নামের এক বৃদ্ধের মৃত্যুরহস্য নিয়ে পাল্টাপাল্টি অভিযোগ উঠেছে।

ঘটনাটি বুধবার বিকালের দিকে উপজেলার চিরাং ইউনিয়নের বাট্টা গ্রামে ঘটেছে। নিহত জালাল উদ্দীন বাট্টা গ্রামের মৃত সুরুজ আলীর ছেলে।

বৃহস্পতিবার সরেজমিনে গেলে কথা হয় নিহত জালাল উদ্দীনের ছেলে ফারুক মিয়ার সাথে তিনি জানান, প্রতিবেশী সোবহান মিয়া এবং সাবান উদ্দিনের সাথে তাদের জমি সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল।

এই বিরুদ্ধের জেরে বুধবার কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে আমার বাবাকে তারা জড়িয়ে ধরে মাটিতে ফেলে আঘাত করায় আমার বাবার মৃত্যু হয়েছে।

এদিকে মৃত জালাল উদ্দীনের ছেলে ফারুক মিয়ার অভিযোগ অস্বীকার করে প্রতিপক্ষ সোবহান মিয়া এবং সাবান উদ্দিন বলেন, জালাল উদ্দীন দীর্ঘদিন ধরে হার্টের অসুখে ভুগছিলেন। এর আগেও জালাল উদ্দীন হার্টের অসুখে স্ট্রোক করেছিল।
বুধবার দুপুরে দিকে হাওর থেকে জালাল উদ্দীন বাড়ি ফেরার পথে আবার হার্টের স্ট্রোক করে বলে খবর পাই এবং তারা জালাল উদ্দীনকে হাসপাতালে নিয়ে যায়। এর কিছুক্ষণ পর তারা বলতে শুরু করে আমরা নাকি তাকে জড়িয়ে ধরে মাটিতে পেলে আঘাত করে মেরে ফেলেছি।
বুধবার জালাল উদ্দীনের সাথে আমাদের কোন ঘটনা ঘটেনি। তাদের এই কথাগুলি সম্পুর্ন মিথ্যা এবং বানোয়াট। এ ঘটনায় তারা প্রশাসনের কাছে সঠিক তদন্তের দাবী জানিয়েছেন।

এ বিষয়ে কেন্দুয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাজী শাহ নেওয়াজ জানান, লাশ ময়নাতদন্তের জন্য নেত্রকোণা হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এলাকার পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।