রমজানেও কুবি ক্যাফেটেরিয়ায় পরিবেশিত হচ্ছে মানহীন খাবার

Link Copied!

পবিত্র রমজানেও মানহীন খাবারে চলছে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের ( কুবি) কেন্দ্রীয় ক্যাফেটেরিয়া। মানহীন খাবারের লাগামহীন দামে ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে শিক্ষার্থীদের। সেহরিতে এমন উচ্চমূল্যের নিম্নমানের খাবার নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করছেন তারা।
জানা যায়, আবাসিক হলে খাবারের অপার্যপ্তা, ক্যাম্পাস সংলগ্ন খাবার হোটেলে উচ্চ দামের খাবার পরিবেশনের ফলে অনেক শিক্ষার্থী সেহরি ও রাতের খাবারের জন্য নির্ভর করছে ক্যাফেটেরিয়ায়। কিন্তু ক্যাফেটেরিয়ায় মানহীন খাবারের কারণে বাধ্য হয়ে বাহিরের হোটেলগুলোতে অতিরিক্ত দামে খেতে হচ্ছে অধিকাংশ শিক্ষার্থীদের। ক্যাফেটেরিয়ার সাথে বাইরের হোটেলে খাবারের দামে খুব তফাৎ না থাকলেও মানে ক্যাফেটেরিয়া থেকে ভাল বাইরের হোটেলে। ফলে ইচ্ছা থাকা সত্ত্বেও ক্যাফেটেরিয়ায় খাবার খেতে পারছেন না শিক্ষার্থীরা। তাদের দাবি বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের উদ্যােগে ক্যাফেটেরিয়ায় যেন মানসম্পন্ন খাবারের ব্যবস্থা করা হয়।
নৃবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী তুষার ইমরান বলেন, রমজানে এধরনের মানহীন খাবার খেয়ে রোজা রাখা কষ্ট হয়ে যায়৷ তাছাড়া দামও আগের চেয়ে বাড়িয়েছে। একই দামে বাইরের হোটেলগুলোতে তুলনামূলক ভালো খাবার পাওয়ায় আমাদের বাইরে গিয়েই খেতে হচ্ছে।
কেন্দ্রীয় ক্যাফেটেরিয়ার পরিচালক মান্নু মজুমদার বলেন, রমজান উপলক্ষে খাবারের প্যাকেজ পরিবর্তন করায় দাম বৃদ্ধি করা হয়েছে৷ তিনি আরো বলেন আগে ভাত, তরকারির আলাদা আলাদা দাম থাকলেও রমজান উপলক্ষে শুধু তরকারির দামটা রাখা হচ্ছে৷ তবে এ নিয়ে যদি কারো অভিযোগ থাকে তবে আমি খাবারের মান আরো বৃদ্ধি করবো।
ক্যাফেটেরিয়ার খাবারের মান ও দামের বিষয়ে প্রশাসনের ভূমিকা জানতে চাইলে ছাত্র পরামর্শক ও নির্দেশনা কার্যালয়ের পরিচালক ড. মোহা. হাবিবুর রহমান বলেন, খাবারের জন্য আলাদা কোনো ভর্তুকি না থাকায় এমন পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে৷ আমি এবিষয়ে ক্যাফেটেরিয়ার পরিচালকের সাথে আলোচনা করবো।
বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. এ. এফ. এম. আব্দুল মঈন বলেন, শিক্ষার্থীদের পড়াশোনার জন্য খাবারের দিকটা আগে দেখতে হয়। তাই আমি ছাত্র পরামর্শকের সাথে কথা বলে দ্রুত ব্যবস্থা নিতে বলবো।