ঢাকামঙ্গলবার , ১৮ জানুয়ারি ২০২২
  1. অপরাধ
  2. অর্থনীতি
  3. আইন আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. কৃষি ও প্রকৃতি
  6. ক্যাম্পাস
  7. খেলাধুলা
  8. চিকিৎসা ও স্বাস্থ্য
  9. জাতীয়
  10. তথ্য ও প্রযুক্তি
  11. প্রবাস বাংলা
  12. বিনোদন
  13. রাজনীতি
  14. শিক্ষা
  15. সম্পাদকীয়

নীলফামারীতে অবহেলিত মানুষের পাশে ব্রিগেট টুপামারী

স্বপ্না আক্তার। রংপুর ব্যুরো প্রধান।।
জানুয়ারি ১৮, ২০২২ ১০:৩১ অপরাহ্ণ
Link Copied!

দূর্যোগপূর্ণ সময়ে প্রত্যন্ত অঞ্চলের অসহায়, দিনমজুর ও হতদরিদ্র মানুষদের পাশে সহযোগিতায় এগিয়ে আসার প্রত্যয়ে নীলফামারী সদরের টুপামারীতে গঠিত হয়েছে উন্নয়ন মূলক সংগঠন ব্রিগেট টুপামারী। করোনাকালীন সময়ে অসহায়দের পাশে ত্রাণ সহায়তার পাশাপাশি এবারে যোগ দিয়েছে চলমান শীতবস্ত্র বিতরণের কাজে। ব্রিগেট টুপামারী সংগঠনটির সকল সদস্যের অক্লান্ত পরিশ্রম ও আকিজ ক্যাপিট্যাল ম্যানেজমেন্টের সহযোগিতায় এতিম শিশুদের দোড়গোড়ায় শীত নিবারণের জন্য পৌছে দেয়া হচ্ছে শীতবস্ত্র। টুপামারী ইউনিয়নে থাকা ৪টি হাফিজিয়া মাদ্রাসায় বাবা-মা হারা এতিম শিশুদের মুখে হাঁসি ফোটাতে সংগঠনটি পৌঁছে দিচ্ছে শীত নিবারণের জন্য কম্বল।
মঙ্গলবার দুপুরে নিত্যানন্দী পাটোয়ারী পাড়া উমর(রাঃ) হাফিজিয়া মাদ্রাসায় ৫০জন শিক্ষার্থী ও টুপামারী দারুস সুন্নাত সিরাজুল উলূম নূরানী হাফিজিয়া মাদ্রাসার ৬০জন শিক্ষার্থীদের মাঝে করা হয়েছে কম্বল বিতরণ। চলমান এই কম্বল বিতরণ শুধু এতিম শিশুদেরে নয় অসহায়, হতদরিদ্র ও দিনমজুর মানুষের দ্বারে দ্বারে পৌঁছে দেয়া হচ্ছে শীতবস্ত্র। কম্বল পেয়ে এতিম শিশুরা বলেন, রাতে মাদ্রাসার মেঝেতে শুইতে প্রচন্ড ঠান্ডা লাগে। আজকে কম্বল পেয়ে আমরা অনেক খুঁশি।
ছুটিতে এসে সংগঠনটির উন্নয়ন মূলক কার্যক্রম দেখে রাজশাহী ইউনিভার্সিটির গণিত বিভাগের প্রফেসর ড. মোহাম্মদ আব্দুল হক অনেক আনন্দিত। তিনি বলেন, প্রত্যন্ত অঞ্চলে অসহায় মানুষের পাশে ব্রিগেট টুপামারী যেভাবে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছে এটা অত্যন্ত ভালো কাজ। আজকে আমাদের এই পাটোয়ারী পাড়ার এতিম শিশুদের কম্বল বিতরণ করা হয়েছে এটা আসলে আমাকে অবাক করিয়ে দিয়েছে।আশা করি ব্রিগেট টুপামারী সংগঠনটির মতো অন্যান্য ইউনিয়ন গুলোতে যদি এরকম উন্নয়ন মূলক সংগঠন করা যেতো তাহলে সমাজে অসহায় মানুষ একদমে খুঁজে পাওয়া যেতো না। আমি এলাকার মানুষের কাছ থেকে জেনেছি, করোনাকালীন সময় ব্রিগেট টুপামারী সংগঠনটি অসহায় কর্মহীন মানুষের দ্বারে দ্বারে ত্রাণ সহায়তা পৌঁছে দিয়েছে।
কম্বল বিতরণী অনুষ্ঠানে উপস্থিত থেকে টুপামারী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মসিরত আলী শাহ্ ফকির বলেন, আমাদের ইউনিয়নে বিগ্রেট টুপামারী সংগঠনটির সাথে যুক্ত থাকা প্রত্যেকটি সদস্য অক্লান্ত পরিশ্রম করে। নিজের সহযোগিতার পাশাপাশি অন্যদের সহায়তা নিয়ে সর্বদা মানুষের পাশে রয়েছে।
সংগঠনটির ভোলান্টিয়ার মামুন আলী শাহ্ ফকির বলেন, নিজেদের পাশাপাশি অন্যের সহযোগিতায় প্রায় দু’বছর ধরে প্রত্যন্ত অসহায় ছিন্নমূল মানুষদের সাহায্য করে যাচ্ছি। আসলে রকম যদি প্রতিটি এলাকায় একটি করে উন্নয়ন মূলক সংগঠন থাকতো। তাহলে সমাজে অবহেলিত মানুষ খুঁজে পাওয়া যেতো না। অসহায় মানুষদের আর না খেয়ে কিংবা পোষাকের অভাব বোধ হতো না।
সংগঠনটির পরিচালক মাসুম আলী শাহ্ ফকির বলেন, দূর্যোগপূর্ণ সময়ে প্রততœ অঞ্চলের মানুষরা একদম অসহায় হয়ে পড়ে। সেই দিক চিন্তা করে আমাদের ইউনিয়নের কিছু তরুণ মিলে সংগঠনটির উদ্ভব ঘটে। সকলের অক্লান্ত পরিশ্রম ও সহযোগিতায় আমরা অসহায় মানুষের দ্বোড়গোড়ায় আমাদের সেবা পৌঁছে দিতে পেড়ে অনেক আনন্দিত। করোনাকালীন সময়ে মানুষের সেবা করে হাসি ফুটাতে পেরে অনেক তৃপ্তি পেয়েছি। এই তো সেদিন আমাদের ইউনিয়নের কয়েকটি পরিবারের ঘরবাড়ি পুড়ে ছাড়খার হয়ে গেছে। পরনের কাপড় ছাড়া কিছুই রক্ষা হয়নি পরিবার গুলোর। আমাদের সংগঠনটির তাদেরকে সাহায্য করার সৌভাগ্য হয়েছে। এখন অসহায়,এতিম, হতদরিদ্র ও দিনমজুর শীতার্তদের মাঝে ধারাবাহিক কম্বল বিতরণ চলছে। পথ শিশু ও অবহেলিত শিশুদের নিয়েও কাজ করছে সংগঠনটি।