ঢাকাশুক্রবার , ১৪ জানুয়ারি ২০২২
  1. অপরাধ
  2. অর্থনীতি
  3. আইন আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. কৃষি ও প্রকৃতি
  6. ক্যাম্পাস
  7. খেলাধুলা
  8. চিকিৎসা ও স্বাস্থ্য
  9. জাতীয়
  10. তথ্য ও প্রযুক্তি
  11. প্রবাস বাংলা
  12. বিনোদন
  13. রাজনীতি
  14. শিক্ষা
  15. সম্পাদকীয়
আজকের সর্বশেষ সবখবর

নড়াইলে ধর্ষণ চেষ্টার ঘটনা ধামাচাপা দিতে বিভিন্ন মহলে দোড়ঝাপ

রফিকুল ইসলাম। নড়াইল জেলা প্রতিনিধি।।
জানুয়ারি ১৪, ২০২২ ১১:৩৩ অপরাহ্ণ
Link Copied!

নড়াইলে এক নারীকে অর্থের প্রলভোন দেখিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ চেষ্টা ধামাচাপা দিতে বিভিন্ন মহলে দোড়ঝাপ।ভুক্তোভোগী বিভিন্ন মহল ও নিজ গ্রামে অভিযোগ করলেও কেউ ওই প্রভাবশালী কামরুজ্জামান খাঁন তুহিন এর সমাধান করতে সাহস পাইনি এবং রুপগঞ্জ বাজারের ঘটনা বলে গ্রামের একাধিক ব্যক্তী জানান,পংকবিলা’র ঘটনা না এটা উপার রুপগঞ্জ বাজারের ঘটনা,রুপগঞ্জে মিমাংশা হবে বলেও জানান গ্রামবাসি।

এদিকে,নড়াইলে এক গৃহীনিকে অর্থের প্রলভোন দেখিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ চেষ্টায় নড়াইল সদর থানায় অভিযোগ দায়ের করেন,ভুক্তভোগী গৃহীনি।গত (২জানুয়ারি) রবিবার নড়াইল সদর থানায় অভিযোগ দায়ের করেন,ওই ভুক্তোভোগী।অভিযোগ ও এজাহার সূত্রে জানা যায়,গত (২২ডিসেম্বর) বুধবার ভুক্তভোগী ওই গৃহীনিকে প্রতিবেশি দুঃসম্পর্কের মামা কামরুজ্জামান খাঁন তুহিন (৪৮),পিতা মৃত,সোনাই খাঁন সাং-উত্তর পংকবিলা থানা নড়াইল সদর জেলা নড়াইল।আসামি আমার দুঃসম্পর্কে মামা হয়,আমি তাকে খুব সন্মান করি,সে নিজেকে দলের বড় নেতা মনে করেন,আমার স্বামী ইজিবাইক এক্সিডেন্ট করেন,১-১১-২০২১ তারিখে বাম পায়ের হাড় দুই ভাগ হয়ে যায়।বহু চেষ্টা করেও পায়ের হাড় জোড়া না লাগায় প্রচন্ড যন্ত্রনা হয়,আমার স্বামী রুপগঞ্জ বাজারের বঙ্গবন্ধু হকার্স মার্কেটের সামনে ফুটপাতে রেডিমেট শিশু বাচ্চাদের পোশাক বিক্রি করে।আমি আমার সংসারের কাজকর্ম শেরে স্বামীর সাথে দোকানদারী করি,স্বামীর পা ভাঙ্গার পরে আমি নিজেই দোকান খুলি।ঘটনার ২/৩ দিন পূর্বে থেকে আসামী জানায়,অর্থের অভাবে তোর স্বামীর চিকিৎসা হচ্ছে না,তুই কি দলদারী করিস,তখন আমি বলি মামা এক্সিডেন্টের কথা সকলেই জানে কিন্তু আমি কাউকে টাকার কথা বলি নাই,তখন আসামী বলে মাশরাফীর এক্সপ্রেস ফাউন্ডেশন বরাবর একটি দরখাস্ত দিতে।তখন আমি বলি এখনো মাশরাফী বিন মোর্ত্তোজা এমপি সাহেবের কাছে যায় নাই,তখন সে বলে তোর মামা আছে কি করতে সব আমি করে দিব,কম্পিউটারের ঘরে গিয়ে বললে তারা একটা দরখাস্ত লিখে দিবে।তার কথা মত আমি একটা দরখাস্ত লিখে আনি এবং আসামী আমাকে সন্ধার দিকে ফোন দিয়ে দরখাস্ত নিয়ে তার কাছে যেতে বলে,তখন আমি আমার দোকানে কেনাবেচা করতে থাকি,বিধায় আমি রাত ৮ ঘটিকার সময় দোকান বন্ধ করে ঘটনা স্থলে গেলে আসামী আমাকে বলে মনি বয়।তখন বিভিন্ন ধরনের কথা বলতে থাকে এক পর্যায়ে বলে আমি তোর কেমন মামা,তখন তার ভাব ভালো না দেখে আমি উঠে দাড়ালে তার প্যান্টের চেন খুলে দিয়ে আমার বাম হাত যোরে চেপে ধরে কুরুচিপূর্ণ কথা বলে ও আমাকে ঝাপটে ধরে যোর পূর্বক ধর্ষণের চেষ্টা করে।আমি আমার সর্বশক্তি দিয়ে যোরে তার তলপেটে লাথি মেরে ছুটে নিচে নেমে আসি,তখন আসামী চিৎকার দিয়ে জুয়েল নামে কাউকে আসতে বলে,সিড়ি দিয়ে একটা ছেলে দৌড়ে উপরে উঠে যায়।আমি বাড়ি যেয়ে দেখি আমার বুকে,হাতে শরীরের বিভিন্ন জায়গায় নখের আচড়ে রক্ত ফুটে আছে ও অনেক যন্ত্রনা করছে।আমি ওই রাতে না ঘুমিয়ে কান্নকাটি করি,২ দিন পরে আমার স্বামীর জোরাজোরিতে স্বামীকে কান্নার কারন এবং বিষয়টি জানায়।২/৩ দিন পরে জাতীয় মহিলা সংস্থার চেয়ারম্যান কবিতা আপা আমাকে ফোন দিয়ে তার বাড়ি ডেকে চানতে চাই কি ঘটেছিলো,আমি তাকে সব খুলে বলার পরে সে বলে যা ঘটেছে চুঁপ থাকো,চেপে যাও,এসব আর কাউকে বলো না।তোমার সন্মান যাওয়া মানে আমাদের ও সন্মান যাওয়া,পরে আরো কিছু মেয়েরা আমার কাছে জানতে চাইলে,আমি তাদেরও পুরো ঘটনা খুলে বললে তারা আমাকে মামলা মোকদ্দমা করতে পরামর্শ দেয়।আমার স্বামী ও মামলা করতে বলে,আমার স্বামীর অসুস্থতার কারনে ও অর্থের অভাবে মোকদ্দমা করতে বিলম্ব হয়েছে।ভুক্তভোগী সাংবাদিকদের ক্যামেরার সামনে ঘটনার বর্ণনা সহ সাক্ষাৎকার দেন এবং সাংবাদিকদের কাছে ভিডিও ফুটেজ সংরক্ষিত রয়েছে।এদিকে কিছুদিন ধরে সোশালমিডিয়ায় ভুক্তভোগীর একটি সাক্ষাৎকারের ভিডিও ভাইরাল হয়েছে।এবিষয়ে,
মুঠোফোনে জানতে চাইলে,কামরুজ্জামান খাঁন তুহিন জানান,এটা জমিজমা সংক্রান্ত এবং নির্বাচন সংক্রান্ত বিষয়,ওই গৃহীনির অভিযোগের বিষয়ে আবারও বললে জানান,আমি এমন বংশের ছেলে না এবং আমি এধরনের লোকও না বলেও জানান।জাতীয় মহিলা সংস্থার চেয়ারম্যান কবিতা জানান,আমি ওই দোকানী গৃহীনিকে কি কারনে বলবো চেপে যেতে,এটা আমার নামে বানোয়াট মিথ্যা কথা বলছে,এতে আমার সন্মানহানী হচ্ছে বলেও জানান।মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা হেলাল উজ্জামান জানান,ধর্ষণ চেষ্টার মামলা আমি তদন্ত করছি এবং মামলাটি প্রতিক্রিয়াধীন রয়েছে,তদন্ত শেষে আপনাদের জানানো হবে বলেও জানান তিনি।