ঢাকাসোমবার , ১১ অক্টোবর ২০২১
  1. অপরাধ
  2. অর্থনীতি
  3. আইন আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. কৃষি ও প্রকৃতি
  6. ক্যাম্পাস
  7. খেলাধুলা
  8. চিকিৎসা ও স্বাস্থ্য
  9. জাতীয়
  10. তথ্য ও প্রযুক্তি
  11. প্রবাস বাংলা
  12. বিনোদন
  13. রাজনীতি
  14. শিক্ষা
  15. সম্পাদকীয়
আজকের সর্বশেষ সবখবর

আন্তর্জাতিক জিমন্যাস্টিকস প্রতিযোগিতার প্রস্তুতি পরিদর্শনে প্রতিমন্ত্রী

রফিকুল ইসলাম। নিজস্ব প্রতিবেদক।।
অক্টোবর ১১, ২০২১ ৭:৪৩ অপরাহ্ণ
Link Copied!

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী উপলক্ষে জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের সার্বিক তত্ত্বাবধানে বাংলাদেশ জিমন্যাস্টিকস ফেডারেশনের উদ্যোগে চলতি মাসের শেষ সপ্তাহে ঢাকায় বসছে ‘বঙ্গবন্ধু ৫ম আন্তর্জাতিক জিমন্যাস্টিকস প্রতিযোগিতা।’

টুর্নামেন্টকে সফল করতে বেশ কয়েক মাস যাবতই চলছে প্রস্তুতি। তারই অংশ হিসেবে আজ বিকেলে জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের (এনএনসি) জিমনেশিয়ামে বাংলাদেশ দলের প্রশিক্ষণ প্রত্যক্ষ করতে এবং টুর্নামেন্ট উপলক্ষে আনা বিভিন্ন সরঞ্জামাদি পরিদর্শন করেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মো: জাহিদ আহসান রাসেল। এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন বাংলাদেশ জিমন্যাস্টিকস ফেডারেশনের সভাপতি শেখ বশির আহমেদ মামুন, যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (ক্রীড়া) মোঃ মোশাররফ হোসেন মোল্লা, এনএসসি সচিব মো: মাসুদ করিম ও ফেডারেশনের কর্মকর্তাবৃন্দ।

এ সময় টুর্নামেন্ট আয়োজন এবং এ উপলক্ষে আনা বিভিন্ন সরঞ্জামাদি সম্পর্কে প্রতিমন্ত্রীকে অবহিত করা হয়।
যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী পুরো জিমনেশিয়াম ঘুরে দেখেন। এ সময় তিনি জিমনেশিয়ামের কিছু সমস্যা সম্পর্কে অবহিত হন এবং এ সব সমস্যা সমাধানে জাতীয় ক্রীড়া পরিষদকর তাৎক্ষণিক ব্যবস্হা গ্রহনের নির্দেশ দেন।

টুর্নামেন্টে অংশগ্রহণকারী জিমন্যাস্টদের সাথেও পরিচিত হন তিনি। এ সময় প্রতিমন্ত্রী বলেন,‘ জাতির পিতার জন্মশত বার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত আসন্ন টুর্নামেন্টে ভাল করতে প্রশিক্ষণসহ যাবতীয় ব্যবস্থা ফেডারেশন ও সরকারের পক্ষ থেকে করা হবে। শুধু এ টুর্নামেন্টেই নয় ভবিষ্যতে আন্তর্জাতিক বিভিন্ন আসরে বাংলাদেশ যাতে ভাল করতে পারে সে জন্য সরকারের পক্ষ থেকে প্রয়োজনীয় সহায়তা দেয়া হবে ।’ তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশের জিমনাস্টিককে বিশ্বমানে উন্নীত করতে কাজ করে যাচ্ছে সরকার।

ফেডারেশনের সভাপতি বশির আহমেদ মামুন জানান, সারা বছরই জিমন্যাস্টিকসের প্রশিক্ষণ চললেও আসন্ন টুর্নামেন্ট উপলক্ষে বাছাই করা ১১জন ছেলে ও ৯জন মেয়ে জিমন্যাস্টকে প্রশিক্ষণ দেয়া হচ্ছে।

খেলোয়াড়দের নিয়ে গত ছয় মাস যাবত নিবিড় প্রশিক্ষণ চলছে। ছেলে-মেয়ে উভয় দলের জন্য আবাসন ব্যবস্থাসহ প্রয়োজনীয় যাবতীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে।

মামুন জানান,‘ আসন্ন টুর্নামেন্টে স্বাগতিক বাংলাদেশ ছাড়া এখন পর্যন্ত সাতটি দেশ তাদের অংশ গ্রহণ নিশ্চিত করেছে। আরো কয়েকটি দেশ অংশ গ্রহণে আগ্রহ প্রকাশ করেছে। টুর্নামেন্ট উপলক্ষে আমরা ফেডারেশনের তহবিল থেকে ৩৫ লক্ষ টাকার বিভিন্ন সরঞ্জামাদি কিনেছি। এ ছাড়া খেলাটির নির্বাহি সংস্থা ইন্টারন্যাশনাল জিমন্যাস্টিকস ফেডারেশনের (এফআইজি) পক্ষ থেকে দেড় কোটি টাকা মূল্যের বিভিন্ন সরঞ্জামাদি পাওয়া গেছে।’