ঢাকাসোমবার , ৪ অক্টোবর ২০২১
  1. অপরাধ
  2. অর্থনীতি
  3. আইন আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. কৃষি ও প্রকৃতি
  6. ক্যাম্পাস
  7. খেলাধুলা
  8. চিকিৎসা ও স্বাস্থ্য
  9. জাতীয়
  10. তথ্য ও প্রযুক্তি
  11. প্রবাস বাংলা
  12. বিনোদন
  13. রাজনীতি
  14. শিক্ষা
  15. সম্পাদকীয়

বগুড়া পুলিশ প্লাজায় চালু হচ্ছে স্টার সিনেপ্লেক্স

বিনোদন প্রতিবেদক।।
অক্টোবর ৪, ২০২১ ৪:১১ অপরাহ্ণ
Link Copied!

বাংলাদেশ পুলিশ কল্যাণ ট্রাস্টের সহযোগী প্রতিষ্ঠান হিসেবে উত্তরাঞ্চলের প্রবেশদ্বার খ্যাত বগুড়া শহরে নির্মিত ‘বগুড়া পুলিশ প্লাজা ‘ ভবনে চালু হচ্ছে স্টার সিনেপ্লেক্স।

আজ (৩ অক্টোবর) সন্ধ্যায় রাজধানীর একটি হোটেলে বাংলাদেশ পুলিশ কল্যাণ ট্রাস্ট এবং স্টার সিনেপ্লেক্সের মধ্যে এ সংক্রান্ত এক চুক্তি স্বাক্ষর হয়েছে। পুলিশ কল্যাণ ট্রাস্টের এআইজি মোঃ ফেরদৌস আলী চৌধুরী এবং স্টার সিনেপ্লেক্সের চেয়ারম্যান মাহবুব রহমান রুহেল নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন।

চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে ডিআইজি (অর্থ ও উন্নয়ন) মোঃ মাহবুবুর রহমান ভূঁইয়া, অতিরিক্ত ডিআইজি ড. শোয়েব রিয়াজ আলম, এআইজি আলমগীর কবিরসহ উভয় প্রতিষ্ঠানের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে ডিআইজি মোঃ মাহবুবুর রহমান ভূঁইয়া বলেন, ২০০১ সালে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রদত্ত অনুদানে পুলিশ সদস্য ও তাদের পরিবারের কল্যাণে গঠিত হয় বাংলাদেশ পুলিশ কল্যাণ ট্রাস্ট। বিভিন্ন প্রকল্পে বিনিয়োগের মাধ্যমে পুলিশ কল্যাণ ট্রাস্টের পরিধি আজ বহুগুণ বৃদ্ধি পেয়েছে। ইন্সপেক্টর জেনারেল অব পুলিশ, বাংলাদেশ ড. বেনজীর আহমেদ বিপিএম (বার) মহোদয়ের গতিশীল নেতৃত্ব ও নির্দেশনায় বিভিন্ন প্রকল্পে বিনিয়োগের পাশাপাশি নতুন নতুন অনেক প্রকল্পের কাজ চলছে। পাশাপাশি অনেক নতুন প্রকল্প হাতে নেয়া হয়েছে।

আগামী বছরের মাঝামাঝি মাল্টিপ্লেক্সটি চালুর পরিকল্পনা রয়েছে বলে স্টার সিনেপ্লেক্সের চেয়ারম্যান জানান। নান্দনিক পরিবেশে হলটিতে সর্বাধুনিক প্রযুক্তি সম্বলিত সাউন্ড সিস্টেম, জায়ান্ট স্ক্রিনসহ বিশ্বমানের সিনেমা হলের যাবতীয় সুযোগ-সুবিধা থাকবে। ঢাকার বাইরের দর্শকরা এখানে আন্তর্জাতিক মানের সিনেমা হলে ছবি উপভোগ করার সুযোগ পাবেন বলে তিনি উল্লেখ করেন।

উল্লেখ্য, কল্যাণ ট্রাস্টের বিভিন্ন প্রকল্পের অর্জিত আয় হতে পুলিশ সদস্যদের কল্যাণ যেমন চিকিৎসা সহায়তা, মেধাবৃত্তি, মৃত্যুবরণকারী পুলিশ সদস্যদের কল্যাণে ব্যয় করা হয়। ট্রাস্ট প্রতিষ্ঠার পর থেকে এ পর্যন্ত পুলিশ সদস্য ও তাদের পরিবারবর্গকে ৫০ কোটি টাকা অনুদান প্রদান করা হয়েছে।