লংগদুর মাইনীমুখ ইউনিয়নের পঙ্গু শুক্কুর’র পাশে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন

এম,কে মাজহারুল ইসলাম রাঙ্গামাটি।

আলো আসবেই
আপনাদের দোয়া ভালোবাসা ও আর্থিক সহযোগিতায় অত্র উপজেলার হতদরিদ্র পঙ্গু শুক্কুর ভাইকে দৃষ্টিনন্দন ছোট্ট একটি চায়ের দোকানের মাধ্যমে স্বাবলম্বী করার লক্ষ্যে দোকান নির্মাণের কাজ চলমান রয়েছে, আশা করছি ইনশাআল্লাহ খুব দ্রুতই নির্মাণ কাজ শেষ হবে।

সম্মানিত স্বেচ্ছাসেবী বন্ধু,
ভয়েস অব লংগদু – আপনাদের নিয়ে সব সময়ই লংগদু উপজেলার গরীব অসহায়,হতদরিদ্র, অসুস্থ ও অসচ্ছল মানুষের পাশে ছিল, ইনশাআল্লাহ ভবিষ্যতেও থাকবে। আমরা সব সময়ই আমাদের নিজস্ব ওয়েব পাতা/গ্রুপে বিভিন্ন সময়ে উপজেলার গরীব অসহায় ও হতদরিদ্র মানুষের জীবন গল্প তুলে ধরে মানবিক মানুষ গুলোর দৃষ্টি আকর্ষণ করে সেবার হাত বাড়িয়ে দিয়েছি, বর্তমানেও চলমান উদ্যোগে অত্র উপজেলার পঙ্গু শুক্কুর কে স্বাবলম্বী করার ক্ষেত্রেও এর ব্যতিক্রম কিছু নয়।

স্বাবলম্বী হবে পঙ্গু শুক্কুর, পঙ্গু বাবার উপার্জনে পেট ভরেই ভাত খাবে শুক্কুরের দুই অবুঝ শিশু,আনন্দ আর আল্লাহ্রেই বেড়ে উঠবে তারা। এমন প্রত্যাশাই আমাদের …..

সম্মানিত মানবিক বন্ধু, দোকানের নির্মাণ কাজ শেষে আপনাদের আরো একটু সহযোগিতা প্রয়োজন … একটা দোকানে তো কত ই লাগে … দরকার তিন টি লাইট জ্বলে এমন ছোট্ট একটা সৌর বিদৎু, একটা গ্যাস সিলিন্ডার, একটা ফ্লাস্ক, একটা চুলা, অল্প দামের কিছু মালামাল … আরো কত কি !

দশের লাঠি একের বোঝ, আপনার ক্ষুদ্র সহযোগিতায়ই হয়তো একটি অসহায় সচ্ছল ও পঙ্গু পরিবার স্বাবলম্বী হবে, অসহায়ের অবুঝ দুটি শিশু সন্তানের জীবন যাত্রায় হয়তো অনেক বেশিই পরিবর্তন আসবে । এতে সয়ং সৃষ্টি কর্তার আরোশ হতেই আপনার জন্য আল্লাহ্ র দয়া আসবে। তাই আপনিও এগিয়ে আসুন সাধ্যমতো যতটুকু ই সম্ভব হয় আপনার পক্ষে, হোক না তা ১ টাকা – হত দরিদ্র পঙ্গু এই ভাইকে স্বাবলম্বী করার উদ্যোগে অংশীদার হতে কথা বলুন ইনবক্স কিংবা কমেন্টস বক্সে।

আসুন মানবিক হই, মমতা ছড়াই।

ধন্যবাদ হারুনুর রশিদ মহোদয় স্যার আপনার ছায়া আছে বলেই আমরা এখনো নতুন ভোরের সপ্ন দেখি। আল্লাহ্ আপনাকে দীর্ঘায়ু করুন।