তালতলীতে “তথ্য আপার” উদ্যোগে সোপি ওয়াটার তৈরি ও মাক্স বিতরণ

মোঃ হাইরাজ বরগুনা প্রতিনিধি,,

বরগুনার তালতলীতে উপজেলা তথ্যকেন্দ্রের উদ্যোগে কোভিড ১৯-(করোনা) মোকাবেলায় সেবাগ্রহীতাদের মাঝে মাস্ক বিতরন ও সোপি ওয়াটার ব্যবহার সংক্রান্ত আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

আজ বৃহস্পতিবার উপজেলার বড়বগী ইউনিয়নের ছাতন পাড়া গ্রামে সকাল ১১ টায় রাখাইনদের মধ্যে সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখে কোভিড ১৯-(করোনা) মোকাবেলায় সোপি ওয়াটার তৈরি ও ব্যবহার সংক্রান্ত আলোচনা সভায়, মাস্ক পরিধানের প্রয়োজনীয়তা, মাস্ক বিতরণ করা, সেবা গ্রহীতাদের বিনামূল্যে ডায়াবেটিস পরীক্ষা এবং রক্তচাপ পরীক্ষাও করা হয়।

আলোচনা সভায় উপজেলা তথ্যসেবা কর্মকর্তা সংগীতা সরকার বলেন, করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে হাত ধোয়ার কোন বিকল্প নেই। কিন্তু নিম্ন আয়ের অসংখ্য মানুষ চাইলেও বাজারে প্রস্তুতকৃত হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার করতে পারে না। স্যানিটাইজারের বিকল্প হিসেবে নিশ্চিন্তে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা কর্তৃক স্বীকৃত সোপি ওয়াটার বা সাবান পানি ব্যবহার করা যায়।

এই অতিসাশ্রয়ী সোপি ওয়াটার তৈরির কৌশল হলো, দেড় লিটার পানির মধ্যে বাজারে পাওয়া চার চামচ যে কোনো ডিটারজেন্ট পাউডার মিলিয়ে ঝাঁকিয়ে নিতে হবে। ব্যস, তৈরি হয়ে গেল। আর পুরো বিষয়টির জন্য সময় দরকার এক মিনিট, অর্থ খরচ হয় এক টাকা। মহামারিতে আমরা আক্রান্ত। আর এখন জীবন রক্ষার একটি অপরিহার্য শর্তে পরিণত হয়েছে হাত ধোয়া। দেশের নিম্ন আয়ের অসংখ্য মানুষ চাইলেও সাবান ব্যবহার করতে পারে না। বিকল্প হিসেবে সোপি ওয়াটারের ব্যবহার করা যায়। সোপি ওয়াটার বাসাবাড়িতে যেমন ব্যবহার উপযোগী, তেমনই উপযোগী বাজার-হাট, বাসস্ট্যান্ডের মতো লোকসমাগম স্থলে, হাসপাতাল, স্কুল এবং ধর্মীয় জনপ্রতিষ্ঠানে। এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন উপজেলা তথ্য সেবা সহকারী শীলা বসু।

উল্লেখ্য গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের জাতীয় মহিলা সংস্থা কর্তৃক পরিচালিত “ ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে তথ্য যোগাযোগ প্রযুক্তির মাধ্যমে মহিলাদের ক্ষমতায়ন “তথ্য আপা”-প্রকল্প (পর্যায়-২) এর কোভিড ১৯-(করোনা) মোকাবেলায় সারা বাংলাদেশ ব্যাপি এ কার্যক্রম শুরু করেছে।