চরফ্যাসনে অমাবস্যার জো’র প্রভাবে নিম্নাঞ্চল প্লাবিত

এম,নোমান চৌধুরী। চরফ্যাশন প্রতিনিধি।।

ভোলা চরফ্যাশনে উজান থেকে নেমে আসা ঢল ও অমাবস্যার জো’র প্রভাবে নদ-নদীর পানি বেড়ে উপকূল বাঁধের বাইরে ও ভিতরের নিচু এলাকা প্লাবিত হয়েছে।

রোববার (২০ সেপ্টম্বর) বিকেলে মেঘনা নদীর পানি বিপদসীমার ৫৪ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এতে আজ রবিবার সন্ধ্যা নাগাদ তলিয়ে গেছে চরফ্যাশন উপকূলের বিস্তীর্ণ জনপদ।

অতিজোয়ারে উপজেলার অন্তত ৫/৬টি নিচু এলাকা জোয়ারের পানিতে তলিয়ে গেছে।

জোয়ারের পানিতে ফসলের ক্ষেত, রাস্তা-ঘাট, বসতভিটা,খামার ও পুকুর ঘের তলিয়ে গেছে। এতে দুর্ভোগে পড়েছেন চরফ্যাশন উপকূলের বিস্তীর্ণ জনপদের নিন্মআয়ের মানুষ।

বিভিন্ন সূত্রে জানা যায়, কুকরি মুকরি, চর পাতিলা, ঢালচর, জাহানপুর ভাসানী আদর্শ গ্রাম, চর মাদ্রাজ ও আছলামপুর ইউনিয়নের কিছু অংশ জোয়ারের পানিতে তলিয়ে গেছে৷ এসকল এলাকার বসবাসকৃত মানুষ চরম দুর্বিষহ জীবন যাপন করছেন৷

সাগর তীরবর্তী দ্বীপ কুকরী মুকরী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আবুল হাসেম মহাজন বলেন, বাধেঁর কাছাকাছি বসবাসরত মানুষের বাড়ি, পুকুর, মাছের ঘের তলিয়ে যাওয়ায় তারা চরম দুর্ভোগে পড়েছেন। ওই সব মানুষ।

অতিরিক্ত জোয়ারে বেশিরভাগ নিন্মাঞ্চল এলাকা ডুবে আছে।

চরফ্যাশন পানি উন্নয়ন বোর্ড ডিভিশন২ (পাউবো)এর নির্বাহী প্রকৌশলী জানান, রবিবার বিকাল থেকে মেঘনার জোয়ারের পানি বিপদসীমার ৫৪ সেন্টিমিটার উপরে প্রবাহিত হচ্ছে। এতে বাঁধের বাইরের নিন্মাঞ্চলের এলাকা প্লাবিত হয়েছে।